মাঠের গর্তেই ৭ লাখ মেট্রিক টন লবণ

কক্সবাজারে নতুন করে উৎপাদনও শুরু

ছোটন কান্তি নাথ, চকরিয়া

বুধবার , ২০ নভেম্বর, ২০১৯ at ৩:০৩ পূর্বাহ্ণ
300

কক্সবাজার জেলার ৭ উপজেলায় এখনো মাঠের কাছেই বড় বড় গর্তের মধ্যে আছে চাষিদের অবিক্রিত প্রায় ৭ লাখ মেট্টিক টন লবণ। মাঠ পর্যায়ে চাষি এবং লবণ চাষি সমিতির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এই তথ্য জানা গেছে।
এদিকে, গত বছর সরকারের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৮ লাখ মেট্রিক টন। চাহিদা মিটে যাওয়ায় উদ্বৃত্ত থেকে যায় এসব লবণ। উদ্বৃত্ত এবং অবিক্রিত লাখ লাখ টন লবণ বর্তমানে এই অঞ্চলের লবণ মাঠের কাছে এবং গুদামে মজুদ রয়েছে।
মাঠ পর্যায়ের চাষিরা জানিয়েছেন, গত কয়েক বছর ধরে আবহাওয়া শুষ্ক থাকায় প্রতি বছরই ভোক্তা এবং শিল্পখাতে চাহিদার বিপরীতে সরকার নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে উদ্বৃত্ত লবণ উৎপাদন করে আসছিলেন চাষিরা। দেশের লবণ শিল্পের জন্য তা সুখবর। তবে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বড় বড় লবণ মিল মালিকরা সিন্ডিকেট করে উৎপাদিত এসব উদ্বৃত্ত লবণের যথাযথ দাম না দেওয়ায় মাঠপর্যায়ের চাষিরা ভবিষ্যতের জন্য মজুদ করে রাখেন।
এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ লবণ চাষি সমিতির নেতা লবণ ব্যবসায়ী হারুণুর রশিদ গতকাল দৈনিক আজাদীকে বলেন, পেঁয়াজের পর নাকি দেশে লবণের সংকট পড়েছে। হুজুগে মানুষগুলোও লবণের পেছনে দৌড়াচ্ছে। গণমাধ্যমে এই খবর জানার পর লবণ চাষিদের মাঝে হাস্যরস্যের সৃষ্টি হয়েছে।
তিনি জানান, কক্সবাজারের সাত উপজেলা চকরিয়া, পেকুয়া, মহেশখালী, কুতুবদিয়া, কক্সবাজার সদর, উখিয়া ও টেকনাফে কম করে হলেও ৭ লাখ মেট্রিক টন লবণ মাঠের কাছে বড় বড় গর্তে এবং গোডাউনে মজুদ রয়েছে। বিভিন্ন মাধ্যমে যেসব খবর প্রচারিত হচ্ছে তা মিথ্যা।
বাংলাদেশ লবণ চাষি সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট এ এইচ এম শহীদুল্লাহ চৌধুরী আজাদীকে বলেন, দেশে লবণের সংকট নেই। সরকারের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করে মাঠপর্যায়ে উৎপাদিত উদ্বৃত্ত লবণের মজুদ এখনো প্রায় ৭ লাখ মেট্রিক টন। সংকটের কথা কেন আসছে? জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার মনে হচ্ছে, বড় বড় মিল মালিকরা সিন্ডিকেট করে দেশের লবণ শিল্পকে ধ্বংস করতে কৃত্রিম সংকটের গুজব ছড়িয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির পাঁয়তারা করছেন; যাতে মানুষ এ নিয়ে ট্রল শুরু করে এবং সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে পারে।
চকরিয়ার লবণ চাষি পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা বলেন, কয়েক বছরের উৎপাদিত উদ্বৃত্ত লবণ তো মজুদ আছেই, পাশাপাশি শীত মৌসুম শুরু হওয়ার সাথে সাথে লবণ উৎপাদনে মাঠে নেমেছেন প্রান্তিক চাষিরা। লবণের সংকটের কথাটি পরিকল্পিত গুজব।

x