মনোনয়নপত্র দাখিলে স্বতঃস্ফূর্ততা, কোনো অভিযোগ নেই

আজাদী প্রতিবেদন

বৃহস্পতিবার , ২৯ নভেম্বর, ২০১৮ at ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
64

মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় প্রার্থীদের পক্ষে কোন অভিযোগ পান নি বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের দুই রিটার্নিং অফিসার আবদুল মান্নান এবং ইালিয়াস হোসেন। সব প্রার্থীই স্বতঃস্ফূর্তভাবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন বলেও দাবি করেন তারা।
চট্টগ্রামের ৬টি সংসদীয় আসনের রিটার্নিং অফিসার এবং চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান সাংবাদিকদের বলেন, ‘চট্টগ্রাম-৪ আসনে মনোনয়ন পত্র পেয়েছি ১৫টি। এছাড়া চট্টগ্রাম-৫ আসনে ১৪টি, চট্টগ্রাম-৮ আসনে ১৫টি, চট্টগ্রাম-৯ আসনে পেয়েছি ১১টি, চট্টগ্রাম-১০ আসনে পেয়েছি ১৩টি, চট্টগ্রাম-১১ আসনে পেয়েছি ১৪টি।’ প্রার্থীদের পক্ষে কোন অভিযোগ ছিল কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সবার মধ্যে আন্তরিকতা দেখেছি। সবাই স্বতঃর্স্ফূত এবং সবাই হাসিখুশির মধ্যেই ছিলেন। সব দলের বড় বড় নেতৃবৃন্দ একত্রেই বসেছেন। প্রায় সবাই কোন না কোন সময় সরকারের মধ্যেই ছিলেন তারা একসঙ্গেই আমার কক্ষে বসেছিল। এটা আমার কাছে ভাললাগার বিষয় ছিল।’
‘কিন্তু বিএনপি নেতকর্মীরা অভিযোগ করছেন, এখনো লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি হয় নি। এখনো তাদের দলীয় কর্মীদের গেপ্তার করা হচ্ছে এবং গায়েবি মামলা দেয়া হচ্ছে।’ এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অভিযোগ, অনুযোগ অতীতেও ছিল। বর্তমানেও আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে। এর মধ্যেই কিন্তু আমাদেরকে ভালো জিনিসটা মানুষের সামনে উপস্থাপন করতে হবে। আমরা সবসময় ভালোর দিকে থাকতে চাই। ‘হোপ ফর দ্যা বেস্ট’।
নির্বাচনী আচরণবিধি সংক্রান্ত এক প্রশো্নর জবাবে তিনি বলেন, ‘এখন মাত্র মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন। যাচাই-বাছাইয়ের পরে যখন কনফার্ম হবে, সুনিশ্চিত হবে তিনি (প্রার্থী) ইলেকশন করতে পারবেন, তারপর থেকে আরো নতুন নতুন ‘মেজার’ আমরা নিব। আচরণবিধির যাতে ঘাটতি না হয়, আচরণবিধির পরিপন্থী কেউ যাতে কোন কাজ না করে। এটা একেবারে শেষ দিন পর্যন্ত, নির্বাচনের ফলাফলের পরেও কিন্তু আমাদের দায়িত্ব আছে। যাতে আইন-শৃঙ্খলার কোন অবনতি না হয়। এ বিষয়ে আমরা আমাদের রুটিন দায়িত্ব পালন করবো।’
জেলা প্রশাসকের বক্তব্য :
চট্টগ্রামের ১০টি সংসদীয় আসনের রিটার্নিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘১০টি আসনে ১০১ টি মনোনয়ন পত্র জমা পড়েছে। উৎসবমুখর পরিবেশে সবকিছু হয়েছে। কারো কাছ থেকে কোন অভিযোগ ছিল না। আশা করছি, নির্বাচন পর্যন্ত এটি বহাল থাকবে। এবং বহাল থাকলে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে।

x