ভোটার হালনাগাদ উদ্বোধন আজ

শুক্রবার , ১ মার্চ, ২০১৯ at ৫:১৫ পূর্বাহ্ণ
31

আগামীতে প্রতিবছর ১ মার্চ থেকে ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু করতে চায় নির্বাচন কমিশন। তবে এবার উপজেলা নির্বাচন থাকায় ১ এপ্রিল থেকে এই কার্যক্রম শুরু হবে। খবর বিডিনিউজের।
বৃহস্পতিবার ইসির মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ তথ্য জানান। ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় ভোটারযোগ্য নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহে বাড়ি বাড়ি যাবে ইসির সংশ্লিষ্ট তথ্য সংগ্রহকারীরা।
প্রথমবারের মতো ১ মার্চ শুক্রবার ‘ ভোটার দিবস’ পালন করছে নির্বাচন কমিশন। এ নিয়ে কেন্দ্রীয় ও মাঠ পর্যায়ে ব্যাপক কর্মসূচি নিয়েছে সাংবিধানিক সংস্থাটি। এ উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে ইসি সচিব বলেন, “আমরা ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে ১ মার্চ থেকে শুরু করব। আগামীকাল শুক্রবার ৬ জন নতুন ভোটারকে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদানের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যক্রম শুরু হবে।” আগামী ১০ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে উপজেলা ভোট। মার্চজুড়েই রয়েছে এ নির্বাচন।
এ প্রসঙ্গ টেনে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, “আনুষ্ঠানিকতা করলেও এবার উপজেলা নির্বাচন থাকায় হালনাগাদ কার্যক্রম মূলত শুরু হবে ১ এপ্রিল থেকে। অন্যান্য বার যেভাবে তথ্য সংগ্রহ করা হয়, এবারও একইভাবে তথ্য সংগ্রহ করা হবে। আগামী বছর থেকে ভোটার তালিকা হালনাগাদ প্রতি বছর ১ মার্চই শুরু হবে।”
শুক্রবার ভোটার দিবস: ১ মার্চ প্রথমবারের মতো জাতীয় ভোটার দিবস পালন করা হবে। উৎসবমুখর পরিবেশে জাতীয় ভোটার দিবস পালনের জন্য সারাদেশে প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার সকাল ৯টায় জাতীয় সংসদ ভবনের সামনের মানিক মিয়া এভিনিউ থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়ে বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রের সামনে গিয়ে শেষ হবে। প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ নির্বাচন কমিশনাররা এতে অংশ নেবেন। বিকেল ৪টায় নির্বাচন ভবনের অডিটরিয়ামে ভোটার দিবস উদযাপন অনুষ্ঠান হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন রাষ্ট্রপতি।
আগাম তথ্য সংগ্রহের পরিকল্পনা : ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় ভবিষ্যতের ভোটারদের আগাম তথ্য সংগ্রহের পরিকল্পনার কথা জানান সচিব।
তিনি বলেন, “আমাদের নতুন একটি চিন্তা রয়েছে। যারা অষ্টম, নবম, দশম, একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়াশুনা করেন, তাদের অগ্রিম কিছু তথ্য সংগ্রহ করব। যাতে নতুন ভোটার হওয়ার আগে তাদের সব তথ্যগুলো পাই। তাহলে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করার যে বিড়ম্বনা, সেটি অনেকটা লাঘব হবে।”
সচিব বলেন, “৯০ ভাগ ছেলে-মেয়ে স্কুল-কলেজে যায়। তাদের তথ্য সেখান থেকে পাওয়া যাবে। বাকি ১০ থেকে ১৫ ভাগ যারা স্কুলে যেতে পারে না তাদের তথ্য বর্তমান পদ্ধতিতে সংগ্রহ করা যাবে।”
প্রবাসীদের নিবন্ধন: প্রবাসী ভোটারদের ভোটার কার্যক্রম শুরুর অংশ হিসেবে সিঙ্গাপুরকে পরীক্ষামূলক দেশ হিসেবে নেওয়া হয়েছে বলে জানান সচিব।
তিনি বলেন, এ লক্ষ্যে আগামী ৩ মার্চ একটি প্রতিনিধি দল সিঙ্গাপুর যাবে। সেখানে প্রবাসীদের ভোটার করার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে তারা।
তিনি জানান, ১ লাখ ৩০ হাজার বাংলাদেশি সেখানে কর্মরত আছেন। তাদের মধ্যে ৫৫ হাজার বাংলাদেশির কোনো আইডি কার্ড নেই। সেখানে প্রতিনিধি দল গিয়ে প্রাথমিকভাবে সম্ভাব্যতা যাচাই করবে।