ভাঙন-ধসের শঙ্কায় তাদের নির্ঘুম রাত

জ্যৈষ্ঠপুরায় খালে বিলীন সাত বসতঘর

বোয়ালখালী প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার , ১১ জুলাই, ২০১৯ at ১১:১১ পূর্বাহ্ণ
18

বোয়ালখালী জ্যৈষ্ঠপুরা কামার পাড়ার বাসিন্দা শাহিদা বেগম, রফিক, জেসমিন আক্তার, রুশা আক্তার, জলিল বক্স, সেকান্দর মিয়া ও উজ্জ্বল বড়ুয়া। টানা বর্ষ্লণ আর পাহাড়ি ঢলে কর্ণফুলী নদী এবং ভান্ডালজুড়ি খালের স্রোত ইতোমধ্যে কেড়ে নিয়েছে তাদের শেষ সম্বল বসতভিটে। এখন তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই। উনুন জ্বলে না। পেটে খিদে। ঘুম নেই চোখে। বিলাপ করতে করতে যেন অশ্রুও শুকিয়ে গেছে।
জ্যৈষ্ঠপুরা বাসী জানান, বর্ষা আসলেই ভান্ডালজুড়ি-কর্ণফুলীর ভাঙন এবং পাহাড়ধসের শঙ্কায় নির্ঘুম রাত কাটাতে হয় তাদের। এবারের বর্ষার শুরুতেই ভান্ডালজুড়ি খালে তলিয়ে গেছে বেশ কয়েকটি বসতঘর। বাকিরাও আছেন আতঙ্কে।
গত মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান স্থানীয় শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোকারম। এসময় তিনি জানান, কয়েকদিনের বৃষ্টিতে এ ইউনিয়নের ভান্ডালজুড়ি খালে এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৭টি বসতঘর তলিয়ে গেছে। ভাঙনের মুখে রয়েছে আরো ডজন খানেক বসতঘর। পাশাপাশি জ্যৈষ্ঠপুরা ৮নং ওয়ার্ডের গুচ্ছগ্রাম, ফতেয়ারখলী সন্দ্বীপপাড়া এলাকায় পাহাড় ধসের আশংকা রয়েছে। পাহাড়ের পাদদেশে এবং নিচু এলাকায় বসবাসকারীদের সরে যেতে বলা হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা প্রদান করতে উপজেলা প্রশাসনকে অনুরোধ করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো.একরামুল ছিদ্দিক বলেন, ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সহায়তার জন্য সরকারিভাবে পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। ভারী বর্ষণে যাতে জানমালের ক্ষতি না হয় সে ব্যাপারে পাহাড় ও ভাঙন কবলিত এলাকার মানুষজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

x