ব্যথা থেকে মুুক্তির প্রাথমিক চিকিৎসা

মো.মুজিবুুলহক শ্যামল

শনিবার , ৯ নভেম্বর, ২০১৯ at ৪:৪৯ পূর্বাহ্ণ
105

আমাদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ বা পেশিতে মাঝে মাঝে ব্যথা হতে পারে। পায়ে, পেশিতে, ঘাড়ে, কোমরে নানা কারণে ব্যথা হতে পারে। শারীরিক যেকোন সমস্যায় ডাক্তার দেখানোই উত্তম। তবে প্রাথমিক কিছু চিকিৎসা আমরা ঘরে বসেই নিতে পারি। বরফ (জেল প্যাক/বরফ) এবং গরম সেঁক (পানির সাহায্যে হিট, ইলেকট্রিক হিটিং পেড বা গরম পানিতে কাপড় ভিজিয়ে ব্যথার স্থানে লাগানো) সহজ, প্রাকৃতিক এবং সাশ্রয়ী উপায়ে ব্যথা নিরাময়ের জন্য। আমরা অনেকেই জানি না কোন ব্যথায় কোন ধরনের সেঁক নিতে হয়। শরীরে ব্যথার স্থানে গরম সেঁক দিব, নাকি ঠান্ড সেঁক? কোনটি উপকারী? এ নিয়ে অনেকে নানা ধরনের দ্বিধা-দ্বন্দে পড়েন। শারীরিক ব্যথা-যন্ত্রণায় ভোগেন না, এমন মানুষ নেই। কখনো মেরুদন্ডের ব্যথা, কখনো কোমরের ব্যথা, কখনোবা পায়ের হাঁটু-গোড়ালিতে বা কখনো শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে চরম ভোগায়। এসব ব্যথা থেকে স্বস্তি পেতে গরম ও ঠান্ডা পানির টোটকা ব্যবহার করা যায়। কোন ধরনের ব্যথায় কী ধরনের ব্যবস্থা নিতে হবে। যেকোনো ইনজুরিতে গরম সেঁক মনে হতে পারে একটি চমৎকার চিকিৎসা। এর ফলে আপনি যেমনই ভালো অনুভব করেন না কেন, নিরাময়ের জন্য গরম সেঁক সর্বাধিক কার্যকর উপায় নাও হতে পারে। শরীরের যে কোনো ব্যথায় কখন গরম সেঁক এবং ঠান্ডা সেঁক অর্থাৎ বরফ ব্যবহার করতে হয় তা সম্পর্কে আপনি কতটুকু জানেন? এ প্রশ্নের সর্বোত্তম উত্তর দেওয়া যাবে ইনজুরির প্রকারভেদ (অ্যাকিউট ইনজুরি এবং ক্রুনিক ইনজুরি) অনুসারে চিকিৎসা এবং চিকিৎসা এবং চিকিৎসার টাইমিং (ওয়ার্ক আউটের পূর্বে ও পরে) বিবেচনা করে। অ্যাকিউট ইনজুরি হচ্ছে সেটি যা গত ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হয়েছে। এটি সাধারণত হঠাৎ আঘাতের ফলে হয়ে থাকে, যেমন-পড়ে যাওয়া, ধাক্কা খাওয়া অথবা সংঘর্ষ হওয়া। ব্যথা, ইনজুরির স্থানে স্পর্শজনিত ব্যথা বা অস্বস্থি, লালতা ভাব, উষ্ন ত্বক এবং ফোলা হচ্ছে অ্যাকিউট ইনজুরির লক্ষণ ও উপসর্গ। ক্রনিক ইনজুরি অ্যাকিউট ইনজুরি থেকে ভিন্ন। এটি সাধারণত ধীরে ধীরে ডেভেল হয়, যা শরীরের কোনো অংশের অতিরিক্ত ব্যবহার অথবা গুরুতর আঘাত অনুপযুক্ত চিকিৎসায় আরোগ্য লাভে হতে পারে। ত্রনিক ইনজুরি যে শুধু একটানা যন্ত্রণা দেবে এমনটা নয়, এর ব্যথা আসা-যাওয়া চক্রের মধ্যে থাকতে পারে অথবা ব্যথা নিস্তেজ হতে পারে। অ্যাকিউট ইনজুরির জন্য বরফ হচ্ছে প্রমাণিত চিকিৎসা। বিশেষ করে এটি ফোলা হ্রাস এবং ব্যথা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করতে পারে। যত তাড়াতাড়ি বরফ প্রয়োগ করা যাবে, এ চিকিৎসা তত বেশি কার্যকর হবে, তাই ইনজুরি হওয়ার প্রথম ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বরফ ব্যবহারে কার্যকরী ফল পাওয়া যাবে।
কোন ধরনের ব্যথায় কোন সেঁকটি দিবেন

গরম সেঁক : বাতের ব্যথা, ঘাড় ব্যথা, কোমর ব্যথা, রগ টান পরা, হাঁটু ব্যথা, পিঠের ব্যথা, পিরিয়ড কালীন ব্যথা, গোড়ালি ব্যথা, গেঁটো বাত, পুরানো যেকোনো ব্যথা ইত্যাদি ছাড়াও আরো অনেক রোগে গরম সেঁক খুবই কার্যকরী ভূমিকা রাখে। এখন বাজারে একধরণের জেল প্যাক হট এন্ড কোল্ড প্যাক পাওয়া যায় সেটিকে ডিপ ফ্রিজে রাখলে ঠান্ডা সেঁক দিবে এবং এটিকে ৫ মিনিট গরম পানিতে রাখলে গরম সেঁক দেওয়া যাবে। এই প্যাক উভয়ের (ঠান্ডা-গরম) কাজ করে।
ঠান্ডা সেঁক : ৪৮ ঘন্টার মধ্যে যেকোনো অ্যাকিউট ইনজুরি বা ব্যথার মধ্যে ঠান্ডা সেঁক খুবই কার্যকরী ভাবে কাজ করে। আবার অনেক সময় পুরানো বাত রোগে ঠান্ডা সেঁক দিলেও উপকার পাওয়া যায়।

x