বোলিংয়ে সাকিবের মতো অবদান রাখার ভাবনা মাহমুদউল্লাহর

ক্রীড়া প্রতিবেদক

রবিবার , ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ at ৮:৫৪ পূর্বাহ্ণ

ব্যাটে-বলে প্রচুর সম্ভাবনা ছিল মাহমুদউল্লাহর। তবে যতটা সম্ভাবনা ছিল, অলরাউন্ডার হিসেবে ততটা পূর্ণতা পায়নি মাহমুদউল্লাহর ক্যারিয়ার। ব্যাটে প্রমাই দিলেও বলে তেমনটা হয়নি। কিন্তু তার যে সামর্থ্য আছে, ঘরোয়া ক্রিকেট তার প্রমাণ দিয়েছেন অনেকবারই। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেভাবে বোলিং করা হয়ে ওঠে না। সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতিতে বোলিংয়ে অবদান রাখার চ্যালেঞ্জ এখন মাহমুদউল্লাহর সামনে। বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক গতকাল জানালেন, বল হাতে সাকিবের মতো অবদান রাখার বিষয়টি তার ভাবনায় আছে। আইসিসির নিষেধাজ্ঞায় আগামী অক্টোবর পর্যন্ত ক্রিকেটের বাইরে থাকতে হবে সাকিবকে। তার অনুপস্থিতিতে একাদশ সাজানো নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয় বাংলাদেশকে। টি-টোয়েন্টি ম্যাচে যেমন ব্যাটসম্যান নিলে বোলিংয়ে চার ওভার ঘাটতি থেকে যায়। বোলার নিলে ব্যাটিংয়ে গভীরতা কমে যায়। সমস্যা সমাধানে কি চার ওভার নিয়মিত বোলিংয়ের পরিকল্পনা আছে মাহমুদউল্লাহর-প্রশ্ন ছিল তার কাছে। তিনি বলেন ‘সাকিবের সঙ্গে যদি নিজেকে পরিমাপ করতে যাই, তাহলে সেটা করাও ঠিক হবে না। সাকিয একজনই। আমরা সবাই জানি, ও কতটুকু ক্যাপাবল ওর ক্রিকেট স্কিল বা ক্রিকেট ব্রেইন দিয়ে। আমি চেষ্টা করব। ওর মতো বোলিংয়ে যদি অবদান রাখতে পারি, তাহলে খুশি হব।’ চোট কাটিয়ে শনিবারই প্রথম মাঠে নামেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে ষষ্ঠ বোলার হিসেবে বোলিংয়ে এসে ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে নেন ১ উইকেট। যে কোনো হিসেবেই এটা ভালো বোলিং, ম্যাচের পরিস্থিতি বিবেচনায় নিলে যা অসাধারণ। ঝড় তুলে ২৬ বলে ফিফটি করা মোহাম্মদ নাঈম শেখকে বেঁধে রেখেছিলেন তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে হাত ঘুরান নিয়মিতই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ততটা বল করতে দেখা যায় না। মাহমুদউল্লাহ জানালেন, নিজের চোট আর তুলনামূলক কার্যকর অফ স্পিনার থাকাতেই একটু পিছিয়ে আছেন তিনি। ‘আমি সবসময় নিজেকে ব্যাটিং অলরাউন্ডার ভাবি। ব্যাটিং বেশি গুরুত্ব পায়। বোলিংটা আমার বাড়তি সুবিধা। জাতীয় দলে এখন বেশি অপশন আছে। আফিফ আছে মোসাদ্দেক আছে। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তারা খুবই কার্যকর বোলার।’ ‘বোলিংয়ে আমি সবসময় নিজের সামর্থ্য দেখাতে চাই। এমন না যে, আমি দেখতে চাই না। চোটের জন্য শেষ ৭ মাস আমি বোলিং করিনি। তখন মোসাদ্দেক ভালো করেছে, আফিফ খুব ভালো স্পিনার। ওরা যেহেতু ছন্দে আছে তাই ওরা ভালো অপশন। যদি ভালো অনুভব করি, চেষ্টা করব ওই ধরনের চ্যালেঞ্জ ম্যাচে নিতে, নিজেকে প্রমাণ করতে।’

x