বুয়া বেশে স্বর্ণ ও টাকা লুট গ্রেফতার আয়েশার স্বীকারোক্তি

আজাদী প্রতিবেদন

মঙ্গলবার , ২৫ জুন, ২০১৯ at ১১:৪৬ পূর্বাহ্ণ

কাজের বুয়া ছদ্মবেশে বাসা বাড়ি থেকে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লোপাটকারী চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য পারভীন আক্তার ওরফে আয়েশা (৩৫) আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। চক্রের অন্য সদস্যদের নামও প্রকাশ করেছে ওই নারী। হোসেন ও হাবিব নামে ঐ দুজনকেও গ্রেফতার করা হয়।
এর মধ্যে হোসেনের সাথে পারভীনের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। গ্রেফতারের পর একদিনের রিমান্ডে নিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। গতকাল সোমবার মহানগর হাকিম আল ইমরান খানের আদালতে পারভীন জবানবন্দি দিয়েছে।
জবানবন্দিতে সে তার বাসা থেকে উদ্ধার হওয়া ৩০ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র ও ২ ভরি স্বর্ণালংকার নাসিরাবাদ এলাকাস্থ ২ নম্বর রোডের ১৩ নম্বর বাসা থেকে চুরি করেছে বলে স্বীকার করে। জবানবন্দির তথ্য অনুযায়ী, কাজের বুয়ার বেশে সে ওই বাসায় সকালে ঢুকে। বাসার মালিক এশার নামাজে বসলে পারভীন পান কিনতে বাইরে যাচ্ছে বলে জানায়। পরে তাকে না পেয়ে বাসার আলমারি খুলে দেখা যায় সেখানে সঞ্চয়পত্র ও স্বর্ণালংকার নেই। এ নিয়ে পাঁচলাইশ থানায় মামলা দায়ের করা হয়।
এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রিতেন কুমার সাহা বলেন, গ্রেফতার তিনজনের বাড়ি পিরোজপুর জেলায়। তাদের মধ্যে পারভীনকে চান্দগাঁওস্থ চর রাঙ্গামাটিয়া এলাকা থেকে এবং বাকি দুইজনকে গোলাপের দোকান এলাকার ভাড়া বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। পারভীনের বাসা থেকেই চুরি যাওয়া সঞ্চয়পত্র ও স্বর্ণালংকার উদ্ধার করা হয়।

x