বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সেতুর উদ্বোধন

বুধবার , ২৪ অক্টোবর, ২০১৮ at ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ
82

নির্মাণকাজ শুরুর নয় বছর পর সমুদ্রের ওপর দিয়ে নির্মিত পৃথিবীর দীর্ঘতম সেতুর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। প্রবেশপথসহ ৫৫ কিলোমিটার লম্বা এ সেতুটি হংকংকে ম্যাকাও ও চীনের মূল ভূখণ্ডের ঝুহাইয়ের সঙ্গে সংযুক্ত করেছে। ২০ বিলিয়ন ডলারে নির্মিত এ সেতুটি খুলে দিতে বেশ কয়েক বছর দেরি হল বলে জানিয়েছে বিবিসি। নিরাপত্তাজনিত কারণে এর নির্মাণ দীর্ঘায়িত হয়েছে। সেতুটি বানাতে গিয়ে প্রকল্পে কর্মরত অন্তত ১৮ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে বলেও জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। গতকাল মঙ্গলবার ঝুহাইতে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শি’র সঙ্গে হংকং ও ম্যাকাওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। আজ বুধবার থেকে সেতুটি সাধারণের চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে।
দক্ষিণ চীনের গুরুত্বপূর্ণ তিন উপকূলীয় শহর হংকং, ম্যাকাও ও ঝুহাইকে সংযুক্ত করা সেতুটি ভূমিকম্প ও শক্তিশালী টাইফুনের আঘাতেও দাঁড়িয়ে থাকার উপযোগী করে বানানো হয়েছে। বলা হচ্ছে, রিখটার স্কেলে ৮ তীব্রতার ভূমিকম্পেও এই সেতু ভেঙে পড়বে না। এটি নির্মাণে চাল লাখ টন ইস্পাত লেগেছে, যা দিয়ে ৬০টি আইফেল টাওয়ার বানানো যেত। খবর বিডিনিউজের।
সেতুটির প্রায় ৩০ কিলোমিটার পার্ল নদীর মোহনা এলাকার সাগরের উপর দিয়ে গিয়েছে। জাহাজ চলাচলের সুবিধার্থে সেতুটির মাঝামাঝি ৬ দশমিক ৭ কিলোমিটার অংশকে সাগরের নিচ দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। দুই পাশে দুটি কৃত্রিম দ্বীপের মধ্য দিয়ে সেতুটি সাগরের নিচের ওই টানেলে নেমে গেছে।
হংকং, ম্যাকাও ও দক্ষিণ চীনের আরও নয়টি শহরকে নিয়ে গ্রেটার বে এলাকা বানানোর পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই চীন সরকার এ সেতুটি নির্মাণের কথা জানিয়েছে। এ পুরো অঞ্চলে প্রায় ৬ কোটি ৮০ লাখ মানুষের বাস। এর আগে ঝুহাই থেকে হংকং যেতে চার ঘণ্টার মতো সময় লাগত। নতুন এ সেতু ওই সময়কে আধা ঘণ্টার নিচে নামিয়ে আনবে।
যারা সেতুটি ব্যবহার করবে তাদের কোটা পদ্ধতিতে দেওয়া বিশেষ অনুমোদন নিতে হবে। সেতু ব্যবহারকারী সব যানবাহনকেই টোল দিতে হবে। সেতুটিতে কোনো রেল সংযোগ রাখা হয়নি। সেতুটি দিয়ে প্রতিদিন প্রায় নয় হাজার ২০০টি যান যাতায়াত করবে বলে ধারণা কর্তৃপক্ষের। সামুদ্রিক পরিবেশ বিশেষ করে চীনের বিরল প্রজাতির সাদা ডলফিনের ওপর সেতুটির প্রভাব নিয়ে পরিবেশবিদরা উদ্বিগ্ন। ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ফান্ড ফর নেচারের (ডব্লিউডব্লিউএফ) হংকং শাখার তথ্য অনুযায়ী, গত ১০ বছরে সমুদ্রের হংকং অংশে এ সাদা ডলফিনের সংখ্যা ১৪৮ থেকে নেমে ৪৭ এ এসে পৌঁছেছে। আর এখন সেতুটির আশপাশের এলাকায় এ প্রাণীটির দেখাই মিলছে না।

x