বিনোদনের রঙের স্মরণানুষ্ঠান

নাছির হোসাইন জীবন

বৃহস্পতিবার , ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ at ৩:৪৭ পূর্বাহ্ণ
7

বিনোদনের রঙ পরিবারের উদ্যোগে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী প্রবাল চৌধুরীর দশম মৃত্যুবার্ষিকী ও ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তী আইয়ুব বাচ্চুর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণে এক স্মরণ আলোচনা সভা ও সংগীতানুষ্ঠান পত্রিকার প্রধান সম্পাদক আলী আহমদ শাহীনের সভাপতিত্বে গত ১৮ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টায় চট্টগ্রাম একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রামের আঞ্চলিত পরিচালক এস.এম.আবুল হোসেন। অতিথি আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট কবি গীতিকার ডাঃ গোলাম মোস্তাফা, চট্টগ্রাম মিউজিক্যাল ব্যান্ড এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলী, সঙ্গীতশিল্পী সাইফুদ্দীন মাহমুদ খান, সঙ্গীত পরিচালক জেকব ডায়েস। বিনোদনের রঙ পরিবারের সম্পাদক নাসির হোসাইন জীবনের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সুরকার ও গীতিকার ইকবাল মাহমুদ খান, বিনোদনের রঙ এর প্রধান উপদেষ্ঠা লায়ন এম.এ.মুছা বাবলু, লেখক নাজিম উদ্দীন এ্যানেল, সঙ্গীতশিল্পী শাহরিয়ার খালেদ, গীতিকার ফারুক হাসান, সঙ্গীতশিল্পী তাপস চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন এহসানুল করিম, সুজিত চৌধুরী মিন্টু, ওসমান জাহাঙ্গীর, মোঃ আওরঙ্গজেব মান সম্রাট, আবদুল্লাহ মজুমদার, তাপস আচার্য্য, জগলুল পাশা, দিদারুল ইসলাম, মোঃ ওবায়দুল্লাহ, স.ম.জিয়াউর রহমান, আলমগীর হোসেন, সানজিদা নাছমিন, রিমন মুহুরী, ডাঃ বরুণ কুমার আচার্য বলাই, রতন ঘোষ, তাপস আচার্য্য, নিহা,নুরুল হুদা প্রমুখ। সঙ্গীত পরিবেশন করেন সাইফুদ্দীন মাহমুদ খান, শাহরিয়ার খালেদ, ফরিদ বঙ্গবাসী, তাপস চৌধুরী, ইকবাল মাহমুদ, দিদারুল ইসলাম, মেহেদী হাসান, নাসির হোসাইন জীবন, নারায়ন দাশ, সানজিদা ও মৌ। সভায় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন প্রয়াত ২ শিল্পী প্রবাল চৌধুরী ও ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চু শুধু চট্টগ্রাম নয় সারা বাংলাদেশের সঙ্গীত জগতের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। যাদের গান বাংলাদেশের গন্ডি পেরিয়ে উপমহাদেশে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছে। তিনি বলেন প্রবাল চৌধুরী মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের মাধ্যমে গান করে সেদিন মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রাণিত করেছিলেন স্বাধীনতা যুদ্ধে। একজন গুণী ও প্রতিভাবান শিল্পী হিসেবে প্রবাল চৌধুরী প্রজন্মের কাছে যুগ যুগ বেঁচে থাকবে। তিনি বলেন প্রয়াত ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চুর সঙ্গীত প্রতিভা শুধু বাংলাদেশ নয় উপমহাদেশজুড়ে সুখ্যাতি অর্জন করেছে। তিনি বলেন আইয়ুব বাচ্চু গিটারিস্ট হিসেবে বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে পরিচিত করেছেন। সভার শুরুতে প্রয়াত ২গুণী সঙ্গীতশিল্পীর প্রতি সম্মান জানিয়ে নীরবতা পালন করা হয়। সঙ্গীতানুষ্ঠানে শিল্পী সাইফুদ্দিন মাহমুদ খান গেয়ে শুনান প্রবাল চৌধুরীর গাওয়া বিখ্যাত গান “লোকে যদি মন্দ কয়”, শিল্পী শাহরিয়ার খালেদ গান “আমি ঝড়ের কাছে প্রশ্ন”, শিল্পী ফরিদ বঙ্গবাসী গান “শূন্য জীবন”, শিল্পী তাপস চৌধুরী গান প্রবাল চৌধুরী গাওয়া বিখ্যাত “ভেবোনা গো মা তোমার ছেলেরা”, শিল্পী দিদারুল ইসলাম গান আইয়ুব বাচ্চুর বিখ্যাত গান “অভিলাসী আমি”, শিল্পী ইকবাল মাহমুদ গান ও সানজিদা গান “চুমকি চলেছে একা পথে / চুপি চুপি বল কেউ জেনে যাবে / যদি বউ সাজোগো”, শিল্পী নাসির হোসাইন জীবন গান প্রবাল চৌধুরী বিখ্যাত গান “আমি ধন্য হয়েছি ওগো ধন্য” ও আইয়ুব বাচ্চুর বিখ্যাত গান ‘সেই তুমি কেনো এতো অচেনা হলে”, শিল্পী মেহেদী হাসান গান “আমি ধন্য হয়েছি ওগো ধন্য”, শিল্পী নারায়ণ দাশ গান “মাগো ভাবনা কেনো”, শিল্পী মৌ গান “ও প্রাণের রাজা”। যন্ত্র সংগীতে সহযোগিতা করেন-রুটস্‌ একোস্টিক টিম।

x