বাবার লাশ মর্গে দুই সন্তান পরীক্ষা কেন্দ্রে

আজাদী প্রতিবেদন

সোমবার , ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৭:৩৬ পূর্বাহ্ণ
222

প্রকৃতির কী নির্মম নিষ্ঠুরতা! দুই সন্তান এসএসসি পরীক্ষার্থী, তাই পিতার মৃত্যুর সংবাদ তাদের জানানো হয়নি। বাবার লাশ যখন মর্গে, দুই সন্তান তখন ছিল পরীক্ষা কেন্দ্রে। হতভাগ্য এই দুই সন্তানের পিতা সফর আলী (৪৮) গত শনিবার দিবাগত রাত তিনটায় নগরীতে বন্ধুর বাসায় মারা যান বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে। তিনি কর্ণফুলী উপজেলার চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের মৃত আবদুল মোতালেবের পুত্র।
সূত্র জানায়, সফর আলী তার তিন সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে নগরীর ফিরিঙ্গীবাজার কবি নজরুল ইসলাম সড়কের রহমান টাওয়ারের চতুর্থ তলায় ভাড়া বাসায় থাকেন। স্ত্রী আয়মন আকতার কর্ণফুলী উপজেলার চরলক্ষ্যা উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক। তাদের তিন সন্তানের মধ্যে দু’জন এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী। এদের মধ্যে নগরীর ডা. খাস্তগীর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে সুমাইয়া ফিরোজা আনিকা কাজেম আলী স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে এবং কলেজিয়েট স্কুল এন্ড কলেজ থেকে আবদুল্লাহ আল আবিদ মিউনিসিপ্যাল মডেল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। গতকাল রোববার ছিল বাংলা দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা। অপর সন্তান ৬ষ্ঠ শ্রেণি পড়ুয়া।
কর্ণফুলী উপজেলার চরপাথরঘাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ আহমদ বলেন, সফর আলী তাদের চাচাতো ভাই। শনিবার দিনের কাজ শেষ করে বন্ধুর বাসায় গেলে গভীর রাতে ওখানেই সফর আলী মৃত্যু হয়। রোববার দুই সন্তানের এসএসসি পরীক্ষা থাকায় বাবার মৃত্যুর সংবাদ তাদের জানানো হয়নি। বাবার লাশ যখন ছিল হাসপাতালের মর্গে, তখন দুই সন্তানই পরীক্ষা দিচ্ছিল। পরে পরীক্ষা দিয়ে যখন বাসায় ফিরে জানতে পারে তাদের বাবা আর নেই। এসময় তারা কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। পরে গতকাল সন্ধ্যায় বা’দ মাগরিব গ্রামের বাড়িতে নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে সফর আলীকে দাফন করা হয়।
কর্ণফুলী চরপাথরঘাটাস্থ একটি সামাজিক সংগঠনের সহ-সভাপতি মালেক রানা বলেন, সফর আলী ব্যবসায়ী হলেও ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলন সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন। তাঁর এই অকাল মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

x