বাঁশখালীর ১১ হত্যা মামলা দ্রুত শেষ করার আহ্বান

স্মৃতিস্তম্ভে বিভিন্ন সংগঠনের শ্রদ্ধা নিবেদন

বাঁশখালী প্রতিনিধি

সোমবার , ১৯ নভেম্বর, ২০১৮ at ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ
97

সারাদেশে তোলপাড় করা বাঁশখালীর সাধনপুরের ১১ হত্যার ১৫টি বছর পেরিয়ে গেল নীরবেই । ছিল না আগের মত সেই তোড়জোড়, ফলে নিরাশ ছিলেন মামলার বাদী বিমল শীল থেকে শুরু করে পরিবারের অপরাপর সদস্যরা । সেই ২০০৩ সালের ১৮ নভেম্বর রাতে বর্বরতম এ হত্যাকান্ডে নিহতরা হলেন- তেজেন্দ্র লাল শীল, বকুল বালা শীল, অনিল কান্তি শীল, স্মৃতি রানী শীল, সোনিয়া শীল, রুমি শীল, বাবুটি শীল, প্রসাদী শীল, এ্যানি শীল, ৪ দিনের শিশু সন্তান কার্তিক এবং বান্দরবন থেকে বেড়াতে আসা তেজেন্দ্র শীলের ভায়রা দেবেন্দ্র শীল। গতকাল সাধনপুরের শীলপাড়ায় বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে ১১ হত্যার স্মৃতিস্তম্ভে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ উপলক্ষে আয়োজিত সভায় হত্যা মামলাটি দ্রুত শেষ করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। সভায় বক্তারা বলেন, ১১ হত্যা মামলার আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হলে অপরাধীরা আর কোন অপরাধ করার সাহস পেত না। ১৫টি বছর পেরিয়ে গেলেও এ ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টরা জেল হাজত থেকে বেরিয়ে আবারো নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। মামলার বাদী বিমল শীল জানান- গত ১৫ বছরে এ মামলায় কয়েকজন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয় । এ উপলক্ষে গতকাল ১৮ নভেম্বর শীলপাড়ায় এক স্মরণসভা সাধনপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও বাঁশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দীন চৌধুরী খোকার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় । এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের শ্রম সম্পাদক মো: খোরশেদ আলম । বক্তব্য রাখেন বিমল শীল,সাধনপুর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদুর রশিদ,ইউপি সদস্য ফেরদৌসুল হক ও রেজাউল করিম, মাষ্টার নির্মল শীল,সুনীল শীল,বাবুল শীল প্রমুখ।

x