বনানীর রেইনট্রি থেকে কর্ণফুলীর বড়উঠান : প্রতিবাদ, প্রতিরোধ জরুরি

নিপা দেব

শনিবার , ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৭ at ১১:৪৫ পূর্বাহ্ণ
77

কী দেশে, কী দেশের বাইরে! ২০১৭ সাল হচ্ছে নারীদের জন্য খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বছর। দেশেবিদেশের নীতিনির্ধারণী স্থান থেকে শুরু করে শিক্ষা, মানবাধিকার, ক্ষমতায়ন, সমাজসেবা, কৃষি, পরিবেশ প্রভৃতি ক্ষেত্রে নারীরা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। কিন্তু ভালো খবরের পাশাপাশি দুশ্চিন্তা জাগানিয়া খারাপ খবরেরও কমতি ছিলো না ২০১৭ জুড়ে। এমন কোনো দিন বাদ নেই যে পত্রিকার পাতা খুললেই নারী নির্যাতনের খবর চোখে পড়েনি। ঘরের ভিতর কিংবা বাইরে, পথেঘাটে, মাঠেময়দানে, বাসে, ট্রাকে, মাইক্রোবাসে এমনকি নৌযানেণ্ড সবখানেসবস্থানে ঘাপটি মেরে বসে আছে ধর্ষকরাণ্ড নারী নির্যাতনকারীরা? সুযোগ পেলেই সেইসব পুরুষের ভিতর থেকে হায়েনা বেরিয়ে আসে। সবমিলিয়ে নারীর প্রতি সহিংসতার নানামুখী খবর বছরজুড়েই দেশের মানুষের কাছে ছিল উদ্বেগ জাগানিয়া ব্যাপার।

বলতে গেলে সবচেয়ে আলোচিত ছিলোণ্ড বনানীতে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণ, টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের কর্মী রূপা খাতুনকে কৌশলে ধর্ষণ শেষে ঘাড় মটকে হত্যা ও বগুড়া শহরের সেই তুফান সরকার দ্বারা কলেজছাত্রী ধর্ষণ এবং ধর্ষণের পর ধর্ষিতা ও তার মাকে নির্যাতনের ঘটনা এবং সর্বশেষ গত ১২ ডিসেম্বর গভীর রাতে নগরীর কর্ণফুলী উপজেলার বড়উঠান ইউনিয়নের এক বাড়িতে ডাকাতির সময় তিন প্রবাসী ভাইয়ের স্ত্রী ও তাদের এক বোনকে ধর্ষণের ঘটনা ও থানাপুলিশের মামলা নিতে গড়িমসি করার ঘটনা।

টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের কর্মী রূপা খাতুনকে কৌশলে ধর্ষণ শেষে ঘাড় মটকে শিউরে উঠার মতো জঘন্যবর্বর ওই ঘটনাটি ঘটে গত ২৫ আগস্ট। ওই ঘটনায় ৩০ আগস্ট বাসটির অভিযুক্ত চালক হাবিবুর রহমান (৪৫) ও সুপারভাইজার সফর আলী (৫৫) আদালতে জবানবন্দি দেয়। এর আগের দিন বাসের তিন সহকারী শামীম (২৬), আকরাম (৩৫) ও জাহাঙ্গীর (১৯) আদালতে জবানবন্দি দেয়।

এতে তারা পাঁচজনই ধর্ষণ ও হত্যার কথা স্বীকার করে। পৈশাচিক ওই ঘটনায় দেশের গণপরিবহনে নারীদের নিরাপত্তা নিয়ে নতুনভাবে শঙ্কা তৈরি হয়। এ ঘটনায়ও আসামিদের বিচারকাজ চলছে। আগামী ৩ জানুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হবে।

তবে বছরের শুরুর দিকে দেশ কাঁপানিয়া ঘটনা ছিলো স্বনামধন্য ‘আপন জুয়েলার্সের’ মালিকের ছেলে ও তার বন্ধুদের বিরুদ্ধে ঢাকার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ। বছরের ২৮ মার্চ বনানীর রেইনট্রি হোটেলে তারা ধর্ষণের শিকার হন জানিয়ে ওই দুই ছাত্রীর একজন গত ৬ মে বাদী হয়ে বনানী থানায় মামলা করেন।

মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে শাফাত আহমেদ, তার বন্ধু সাদমান সাকিফ, নাইম আশরাফ, শাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন ও দেহরক্ষী রহমত আলী ওরফে আজাদকে আসামি করা হয়। মামলার এজাহারে বলা হয়, জন্মদিনের দাওয়াত দিয়ে ওই দুই তরুণীকে ধর্ষণ করেন শাফাত ও নাইম আশরাফ। ধর্ষণে সহায়তা করেন সাদমান সাকিফ, গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন ও তার দেহরক্ষী রহমত আলী।

বনানী থানা প্রথমে ওই মামলা নিতে চায়নি। নানা অজুহাত তুলে গড়িমসি করছিল। পরে মামলা নিলেও আসামিদের গ্রেফতারে খুব একটা আগ্রহ দেখাচ্ছিল না। সমালোচনার মুখে পরে আসামিদের গ্রেফতার করা হয়। এখন মামলার বিচার কার্যক্রম চলছে।

বছরের মাঝামাঝিতে অর্থাৎ জুলাই মাসে ঘটে যায় আরেক বর্বর ঘটনা। বগুড়া শহর শ্রমিক লীগের নেতা তুফান সরকার এসএসসি পাস এক ছাত্রীকে কলেজে ভর্তি করার প্রলোভন দেখিয়ে ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ উঠে তখন। শুধু তাই নয়, অভিযুক্ত তুফান সরকার ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেই ক্ষান্ত হয়নি। ওই তরুণী ও ও তার মাকে শারীরিক নির্যাতন করে এবং তাদের মাথা ন্যাড়া করে দেয়। পরে পুলিশ তুফান সরকারকে গ্রেফতার করে। তুফান সরকার এখন জেলহাজতে রয়েছে তবে মামলার বিচার কার্যক্রম এখনও শুরু হয়নি।

এছাড়া বছরজুড়ে বখাটেদের দৌরাত্ম্যও কম ছিলো না। চলতি মাসে মানে ১৬ ডিসেম্বরে সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে ঘোষণা দিয়ে স্কুলছাত্রী হুমায়রা আক্তার মুন্নিকে ছুরিকাঘাতে হত্যার অভিযোগ উঠে স্থানীয় বখাটে যুবক ইয়াহিয়া সরদারের বিরুদ্ধে। একই দিনে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে এক বখাটে দলবল নিয়ে এক পোশাককর্মীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে। বরিশালের উজিরপুরে গত অক্টোবরে এক বখাটের ক্ষুরের আঘাতে বিএম কলেজের এক ছাত্রী গুরুতর আহত হয়। একই মাসে নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় বখাটের চাপাতির কোপে গুরুতর আহত হয় পারভিন নামের আরেক কলেজছাত্রী (১৭)। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় এসব হামলার ঘটনা ঘটেছে (সূত্র: দৈনিক প্রথম আলো)

পত্রিকায় প্রকাশ, এর আগে খুলনার বটিয়াঘাটায় নিজ বাড়িতে বখাটেদের হাতে বাবাকে মারধর ও হেনস্তার শিকার হতে দেখে সইতে না পেরে ঘরে ঢুকে আত্মহত্যা করে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী শামসুন নাহার চাঁদনী। ১০ অক্টোবর পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় দুই বখাটে ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে প্রকাশ ও প্রাণে মেরে ফেলার ভয় দেখালে আত্মহত্যা করে নবম শ্রেণির ছাত্রী রহিমা আক্তার। তাছাড়া অক্টোবরে নরসিংদীর শিবপুর থানায় মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগ এনে আজিজা নামের ১৫ বছরের এক কিশোরীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করেন তার চাচি। ঢাকার কেরানীগঞ্জে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে চাচার হাতে খুন হয় সাত বছরের শিশু ফারজানা আক্তার। ১৬ সেপ্টেম্বর ফারজানা নিখোঁজ হয়। পরদিন চাচা রহমত আলীর বাড়ির পেছনে তার হাতপা বাঁধা লাশ পাওয়া যায়। প্রেমিকের সঙ্গে সম্পর্ক ছেদ করায় খাগড়াছড়িতে গত ফেব্রুয়ারি মাসে খুন করা হয় ইতি চাকমাকে। প্রেমিকই তাকে খুন করে বলে অভিযোগ ওঠে।

এছাড়া, অ্যাসিডসন্ত্রাসও ছিলো এ বছরের সহিংসতামূলক ঘটনার একটা কালো দিক। বছরের সেপ্টেম্বর মাসে নরসিংদীর হালুয়াঘাটে সাবেক স্বামীর ছোড়া অ্যাসিডে ঝলসে যায় মরিয়ম বেগম ও তাঁর দুই ভাইবোন। একই মাসে মাদকাসক্ত স্বামীর ছুড়ে মারা অ্যাসিডে ঝলসে যায় চট্টগ্রামের বিউটি পার্লারকর্মী সাদিয়ার মুখ। একইভাবে অক্টোবর মাসে পুরান ঢাকার নারিন্দায় সাবেক স্বামীর ছোড়া অ্যাসিডে ঝলসে যায় রুবিনা ও তাঁর মা (সূত্র: প্রাগুক্ত)

সর্বশেষ গত ১২ ডিসেম্বর গভীর রাতে নগরীর কর্ণফুলী উপজেলার বড়উঠান ইউনিয়নের এক বাড়িতে ডাকাতির সময় তিন প্রবাসী ভাইয়ের স্ত্রী ও তাদের এক বোনকে ধর্ষণের ঘটনা ও থানাপুলিশের মামলা নিতে গড়িমসি করার ঘটনা ব্যাপক আলোচনাসমালোচনার জন্ম দেয়। পত্রিকায় প্রকাশ, ঘটনার পরদিন ধর্ষিতারা মামলা করতে গেলে ঠিকানা জটিলতার কথা বলে মামলা নেয়নি পুলিশ। পরে ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদের হস্তক্ষেপে পাঁচদিন পর মামলা নেওয়া হয় থানায়। এরপর সদর দপ্তরের নির্দেশে ২৬ ডিসেম্বর মামলার তদন্তভার যায় পিবিআইয়ের হাতে। সকালে দায়িত্ব নেওয়ার পর বিকালে তারা অভিযুক্ত আসামি মিজান মাতব্বরকে গ্রেফতারের কথা জানিয়ে আদালতে হাজির করে। মিজান ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করে জবানবন্দি দেয়। এর আগে কর্ণফুলী থানা পুলিশ আবু, ফারুকী ও বাপ্পী নামে তিনজনকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় এবং আবুকে শনাক্ত করার জন্য টেস্ট আইডেন্টিফিকেশন প্যারেডের আবেদন করে। তদন্ত কর্মকর্তা সন্তোষ চাকমা বলেন, “কর্ণফুলী থানা পুলিশের গ্রেফতার করা তিনজনের নাম মিজানের জবানবন্দিতে আসেনি। মিজান আরও চারজনের নাম বলেছে। তার মধ্যে আবু সামাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।” বাকি তিনজনকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। অবশ্য, ওই ঘটনায় মামলা নিতে বিলম্ব এবং এজাহারে ত্রুটি থাকায় কর্ণফুলী থানার ওসিকে শোকজ করেছে চট্টগ্রামের একটি আদালত (সূত্র: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরডটকম)

সবশেষে বলবোণ্ড দেশে নারী নির্যাতন ও সহিংসতার ঘটনা যেনো থামছেই না। তুফানগতিতে চলছে তুফানদের বর্বরতা। আইন ও সালিশ (আসক) কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী, এ বছরের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত দেশে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ২৮০টি। এর মধ্যে ১৬ জনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় এবং আত্মহত্যা করেছে ৫ জন। অন্যদিকেণ্ড শিশু ধর্ষণের হার প্রাপ্তবয়স্কদের চেয়ে ৩ গুণ বেশি।

কিন্তু এ রকম তো চলতে দেওয়া যায় না। ধর্ষণ ও অন্যান্য সহিংসতা থামাতেই হবে। নইলে এর দায় বইতে হবে সবাইকেণ্ড এরচেয়ে বড় কোনো সত্যি নেই।

তারপরও বলবোণ্ড ২০১৭ সালে আমাদের ব্যক্তিজীবনে, সামাজিক প্রেক্ষাপটে, রাষ্ট্রীয় বা আন্তর্জাতিক অঙ্গণে যত অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য থমকে যাওয়ার কারণ না খুঁজে অশুভকে বিতাড়িত করে শুভক্ষণকে বরণ করবোণ্ড এটাই হোক আমাদের নতুন বছরে আজকের প্রত্যাশা। সব আশাস্নেহভালোবাসা ও শুভস্মৃতি মনের খাঁচায় অমর হয়ে থাকুক। আগামী আসুক পুষ্পশোভিত হয়ে। বিশ্বের যাবতীয় মানুষের কল্যাণ হোক। বাংলাদেশ উত্তরোত্তর সফলতার দিকে এগিয়ে যাক। বিদায় ২০১৭; স্বাগতম ২০১৮। কবিগুরুর ভাষায় আমরাও বলতে চাইণ্ড ‘মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা/ অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা।’

x