ফটিকছড়িতে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ স্বামীসহ গ্রেপ্তার ২

সোমবার , ১১ মার্চ, ২০১৯ at ৬:৪২ পূর্বাহ্ণ
59

ফটিকছড়ির ভূজপুর থানার সুয়াবিল এলাকায় চন্দা ধর (২০) নামে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে স্বামীসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার সকালে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান ভূজপুর থানার ওসি মো. শেখ আবদুল্লাহ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো সুয়াবিল ইউনিয়নের বারমাসিয়া গ্রামের দক্ষিণ হিন্দু পাড়া এলাকার সুনীল ধরের ছেলে গৃহবধূর স্বামী সুরঞ্জিত ধর (২৭) ও ননদ তমা ধর (২০)। এর আগে শনিবার (৯ মার্চ) দিবাগত রাতে শ্বশুর বাড়ি থেকে চন্দা ধরের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। চন্দা ধর বোয়ালখালী উপজেলার গোমদণ্ডী গ্রামের মৃদুল ধরের মেয়ে। খবর বাংলানিউজের।
এ ঘটনায় নিহতের পিতা মৃদুল ধর বাদী হয়ে নিহতের স্বামী সুরঞ্জিত ধর, দেবর রাহুল ধর, শ্বশুর সুনীল ধর, শাশুড়ি প্রীতি ধর, স্বামীর বোন জয়া ধর ও তমা ধরকে আসামি করে ভুজপুর থানায় মামলা করেন। নিহতের বোন ববি ধর বলেন, আগামী বুধবারে দিদির শ্বশুর বাড়িতে সাত ভক্ষণের অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল। অনুষ্ঠান নিয়ে কথা বলতে বাবাসহ আমাদের পরিবারের সদস্যরা সেখানে গিয়েছিলেন শনিবার সকালে। সন্ধ্যায় ফেরার পর দিদির শ্বশুর বাড়ি থেকে ফোন আসে; দিদির সমস্যা হয়েছে আমরা যেন আবার সেখানে যাই। পরে আমরা গিয়ে দেখি খাটের উপর দিদির মরদেহ রেখে তারা সবাই পালিয়ে গেছে।
অভিযোগ জানিয়ে তিনি আরো বলেন, তারা দিদিকে মেরে ফেলে আমাদের খবর দিয়েছে। অনুষ্ঠানের জন্য টাকা চেয়েছিল বাবার কাছে। এ নিয়ে দিদি প্রতিবাদ করায় তাকে খুন করা হয়েছে।
এ বিষয়ে ওসি মো. শেখ আবদুল্লাহ বলেন, চন্দা ধর নিহতের ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। স্বামী সুরঞ্জিত ধর ও ননদ তমা ধরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে বলা যাবে এটি হত্যা কী না। তিনি বলেন, ঘটনার পর থেকে মামলার আসামিরা পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

x