প্রত্যয়ের মুক্তিযুদ্ধের বিজয় উৎসব

আনন্দন প্রতিবেদন

বৃহস্পতিবার , ৩ জানুয়ারি, ২০১৯ at ৪:৩৬ পূর্বাহ্ণ

“এসো স্বপ্ন দেখাই, আলো ছড়াই, একসাথে” স্লোগান নিয়ে বিজয় দিবসে প্রত্যয় শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক একাডেমির উদ্যোগে আয়োজন করা হয় মুক্তিযুদ্ধের বিজয় উৎসব। ১৬ ডিসেম্বর রবিবার পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে সারাদিন ব্যাপী এই উৎসবে ছিল বিজয় র‌্যালী, মুক্তিযুদ্ধের আলোকচিত্র প্রদর্শনী, মুক্তিযোদ্ধা সংবর্ধনা, রক্তদান ও রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা, চিত্রংকন প্রতিযোগিতা, বিভিন্ন সংগঠনের দলীয় পরিবেশনা, আলোচনা ও মুক্তিযুদ্ধের গল্প, মুক্তিযুদ্ধের গান, নৃত্য, আবৃত্তি, চিত্রনাট্য, একাত্তরের চিঠি পাঠ, ফানুস ওড়ানো ও বিভিন্ন গেইম শো । মুক্তিযুদ্ধের বিজয় উৎসব কমিটির চেয়ারম্যান ডা: তাসলিম চেীধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ। তিনি বলেন মুক্তিযুদ্ধ আমাদের অহংকার। অনেক ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতা আমাদের রক্ষা করতে হবে। তাই তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে হবে।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন আবদুল্লাহ ফারুক রবি। সুকান্ত দাশ ও জাহিদুল ইসলাম রকিবের সঞ্চালনায় আলোচনা ও কথামালায় অংশ নেন চট্টগ্রাম চারুকলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ প্রফেসর মোহাম্মদ আবদুল আলিম, অধ্যক্ষ আবু তৈয়ব, ডা: দিলীপ ভট্টাচার্য্য, অধ্যাপক শান্তপদ বড়ৃুয়া, মিজানুর রহমান, কাউন্সিলর গোফরান রানা, সপু বড়ুয়া, আবদুল করিম, প্রভাষক ভগিরৎ দাশ, এস এম হারুনুর রশিদ, ডা. সাইফুদ্দীন খালেদ, ব্যাংকার জিকেএম পিয়ারু, নুরুল হোসাইন, বাপ্পা ঘোষ, মজিবর রহমান ও এমরান হোসেন রাসেল। বক্তারা বলেন, তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগ থেকে শিক্ষা দিনে দেশ গড়ার কাজে অংশগ্রহন করতে হবে। সকাল ৯টায় মুক্তিযুদ্ধের বিজয় র‌্যালীর মাধ্যমে শুরু হয় অনুষ্ঠান। তারপর শুরু হয় মুক্তিযুদ্ধের আলোকচিত্র প্রদর্শনী, রক্ত দান ও রক্ত গ্রুপ পরীক্ষা কর্মসুচি। বিকাল ৩টায় শুরু হয় চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও মুক্তিযুদ্ধের গল্প। মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মান্নান, আবুল কাশেম এবং বীরঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধা আছিয়া খাতুনকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সকাল ৯টায় থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলে মুক্তিযুদ্ধের গান,নৃত্য,আবৃত্তি, চিত্রনাট্য ও একাত্তরের চিঠি পাঠ ও বিভিন্ন্‌ গেইম শো। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দলীয় পরিবেশনা নিয়ে অংশগ্রহন করে সপ্তক সংগীত বিদ্যাপীঠ, ধ্রুব শিল্পকলা একাডেমী, নৃত্যাঞ্চল, গীতল সাংস্কৃতিক একাডেমি, নিবেদন নৃত্য শিল্পী গোষ্ঠী, রঙিন ঘুড়ি সাংস্কৃতিক একাডেমি ও প্রত্যয় শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক একাডেমির সদস্যরা। একক গান পরিবেশন বাপ্পা, শিমুল, অভিজিৎ, শিবু, বৃষ্টি, ইপা ও পারভেজ। আবৃত্তি করেন গৌতম চৌধুরী ও সায়মা তৈয়ব। অনুষ্ঠানের ফাঁকে অতিথিরা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার বিতরণ করেন।

x