পার্বত্য শান্তিচুক্তি পাহাড়ে শান্তি ফেরাতে ব্যর্থ

মানববন্ধনে শাহাদাত

বুধবার , ২৫ এপ্রিল, ২০১৮ at ১২:০১ অপরাহ্ণ
70

পার্বত্য চট্টগ্রামের সাধারণ জনগোষ্ঠী আজ জিম্মি অবস্থায় দিনযাপন করছে। উপজাতীয় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম দিনদিন বেড়েই চলছে। খুন, গুম ও অপহরণের মাধ্যমে মুক্তিপণ দাবি এদের প্রধান হাতিয়ার হয়ে দাঁড়িয়েছে। সর্বশেষ মাটিরাঙা উপজেলায় অপহৃত তিন ব্যাসায়ীর পরিবার খুব আতংকে দিনযাপন করছে। মুক্তিপণ দেয়ার পরও তাদের মুক্তি মেলেনি আজও। সাম্প্রতিককালে পার্বত্য চট্টগ্রামে বিভিন্ন সশস্ত্র গ্রুপউপগ্রুপ কর্তৃক ব্যাপক হারে চাঁদাবাজি, গুম, খুন ও অপহরণ বেড়ে যাওয়ায় শান্তিপ্রিয় জনগণ উৎকণ্ঠিত এবং আতংকিত। এই সরকারের আমলে পাহাড়ে সাধারণ জনগোষ্ঠী কোনভাবেই নিরাপদ নয়। ১৯৯৯ সালে করা পার্বত্য শান্তি চুক্তি সংবিধানের সার্বভৌমত্বের সাথে যে রকম হুমকি স্বরূপ ঠিক তেমনি এটি পাহাড়ে শান্তি ফেরাতেও ব্যর্থ। শান্তি চুক্তির ২০ বছর পরে এটিই প্রমাণিত।

পার্বত্য চট্টগ্রামে তিনজন বাঙালি ব্যাবসায়ী অপহরণের প্রতিবাদে গত ১৯ এপ্রিল চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলনের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব সম্মুখে আয়োজিত মানববন্ধনে নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন এসব কথা বলেন। পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলন, চট্টগ্রাম এর সভাপতি সৌরভ প্রিয় পালের সভাপতিত্বে উক্ত মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন নগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আবু সুফিয়ান, আমার দেশ পত্রিকার চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান জাহিদুল করিম কচি, রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম ফরহাদ, কাপ্তাই উপজেলা চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন, এডভোকেট নজরুল ইসলাম, সমঅধিকার আন্দোলন বান্দরবনের সাধারণ সম্পাদক মিঠুন দাশ, মিজানুর রহমান, বেলাল হোসেন, জাহিদ হাসান, খাগড়াছড়ি জেলা শ্রমিক নেতা হাসান মাহমুদ, সমঅধিকার আন্দোলন রাঙামাটি জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক ইকবাল হোসেন জুয়েল, প্রচার সম্পাদক জিকু কুমার দে, বিল্লাল হোসেন, মো. ইয়াকুব, মো. আলাউদ্দিন, মোহাম্মদ হোসেন, মো. ইসমাইলসহ তিন পার্বত্য জেলার সমঅধিকার আন্দোলনের প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ বলেন, অতিসত্বর অপহৃতদের মুক্তি না দিলে চট্টগ্রামসহ তিন পার্বত্য জেলায় অবরোধ, হরতালসহ কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করবে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x