‘পাটের ভবিষ্যৎ টেক্সটাইলে দেখতে চাই’

মঙ্গলবার , ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ at ১১:০২ পূর্বাহ্ণ

সংসদ সদস্য মতিয়া চৌধুরী বাংলাদেশ পাট গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, পাটের সঙ্গে তুলার মিশ্রণে শাড়ি তৈরির প্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পন্ন করতে হবে। এটা আপনাদের মনোযোগ দিয়ে করতে হবে। গতকাল সোমবার দুপুর ১২টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবে সৃজনশীল প্রকাশনা সংস্থা ঐতিহ্যের বিজ্ঞানী মাকসুদুল আলম স্মারকগ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
তিনি বলেন, পাট নিয়ে অনেক লেখালেখি হয়। পাটখড়ি থেকে পারটেক্স তৈরি হয়। পাটকে সোনালী আঁশ বলা হয়। এটি শুধু পরিবেশবান্ধব বলে এটাকে চটের ভেতর সীমাবদ্ধ রাখা যায়। আমি পাটের ভবিষ্যৎ এভাবে দেখি না। খবর বাংলানিউজের।
বিজ্ঞানী মাকসুদুল আলমের সহকর্মী ও বাংলাদেশ পাট গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, দেশের লোকগীতির কবিতায় পাটের শাড়ির কথা উল্লেখ আছে। সেই সময়ের কবিরা যদি পাটের শাড়ির কথা কল্পনা করতে পারেন, তাহলে বিজ্ঞানীরা কেনো চিন্তা করতে পারবেন না।
মতিয়া চৌধুরী বলেন, আমি খুবই অজ্ঞ। অজ্ঞ লোকেরা বেশি কথা বলে। আমিও বেশি কথা বলি। পাটের ভবিষ্যৎ টেক্সটাইলে দেখতে চাই। পাটের সঙ্গে যদি তুলার মিশ্রণে আমরা এগিয়ে যেতে পারি, তাহলে আমরা সফল। ইতিহাস, জ্ঞান, বিজ্ঞান ও আবিষ্কারের মাধ্যমে এই কাজটা করতে হবে।
তিনি আরও বলেন, আমরা কেন শাড়ি বানাতে পারি না। একজন বিজ্ঞানী বলেছেন, পাটের সমস্যা হলো এটি দেখতে অনেক লম্বা। কিন্তু প্রকৃত পক্ষে লেন্থ কম। তুলার চেয়ে অনেক কম। ব্যান্ডিং এ সমস্যা হয়। বিজ্ঞানীদের কাছেই তো সমাধান। আপনারাই এই সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করতে পারেন। বিজ্ঞনীদের এই কাজটি করতে হবে। তাহলে বিজ্ঞানী মাকসুদুল আলম আপনাদের মধ্যে বেঁচে থাকবেন।
ঐতিহ্য প্রকাশিত শাহেদ কাজী সম্পাদিত বিজ্ঞানী মাকসুদুল আলম স্মারকগ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাবেক সদস্য অধ্যাপক ড. এম ইউসুফ আলী মোল্লা, অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল মঞ্জুরুল আলম ও রাফিয়া হাসিনা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

x