পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ জয় অস্ট্রেলিয়ার

স্পোর্টস ডেস্ক

শনিবার , ৯ নভেম্বর, ২০১৯ at ৫:৩২ পূর্বাহ্ণ
3

টি-টোয়েন্টি কিভাবে খেলতে হয় সেটাই যেন ভুলতে বসেছে পাকিস্তান। নতুন অধিনায়ক বাবর আজম নিজের প্রথম সফরেই দল নিয়ে রীতিমত ধুঁকছেন। অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের সামলাতে মাথার ঘাম পায়ে ঝরছে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের। নিজেদের মাটিতে দুর্বল শ্রীলংকার কাছে হোয়াইট ওয়াশ হওয়া পাকিস্তান এবার হোয়াইট ওয়াশ হলো অস্ট্রেলিয়ার কাছে। সিরিজের প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় দুই ম্যাচের সিরিজে পরিণত হয়েছিল এই সিরিজটি। আর সে দুই ম্যাচেই হেরে হোয়াইট ওয়াশ হলো বিশ্বের এক নম্বর টি-টোয়েন্টি দল পাকিস্তান। গতকাল সিরিজের তৃতীয় ও শেষ শ্যাচে পাকিস্তানকে হেসেখেলেই ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আর এ জয়ের ফলে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতল স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটিতে বৃষ্টির বদান্যতায় বেঁচে গিয়েছিল পাকিস্তান। সে ম্যাচে ১৫ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে মোটে ১০৭ রান তুলতে পেরেছিল সফরকারিরা। জবাবে অস্ট্রেলিয়া ১৯ বলেই বিনা উইকেটে ৪১ রান তুলে ফেললে বৃষ্টিতে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানকে হেসেখেলেই ৭ উইকেটে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। প্রথমে ব্যাট করে পাকিস্তান ৬ উইকেটে ১৫০ রানের মাঝারি পুঁজি গড়লেও সেদিন ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন বেশিরভাগ ব্যাটসম্যান। বাবর আজমের ৫০ আর ইফতিখার আহমেদের ৬২ রান বাদ দিলে স্কোরটা কি হতো আন্দাজ করাই যায়। আর গতকাল শুক্রবার পার্থে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে খেলতে নেমেছে দুই দল। এবার অবস্থা আরও খারাপ পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের। এই ম্যাচে পুরো ২০ ওভারই ব্যাট করেছেন তারা। কিন্তু তুলতে পেরেছেন মোটে ১০৬ রান। এর মধ্যে ত্রাতা সেই ইফতিখার। দলের ১০৬ রানের মধ্যে ৪৫ রানই তার। ইমাম উল হক করেন ১৪। বাকি ব্যাটসম্যানরা কেউ দশের ঘরও ছুঁতে পারেননি। অস্ট্রেলিয়ার তিন পেসারই পাকিস্তানের ক্ষতি যা করার করে দিয়েছেন। কেইন রিচার্ডসন ১৮ রান খরচায় নেন ৩ উইকেট। ২টি করে উইকেট শিকার শন অ্যাবট আর মিচেল স্টার্কের। ম্যাচের এক ইনিংস পার হতেই বোঝা যাচ্ছিল ম্যাচের ফল কি হতে যাচ্ছে। পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানরা যে বোলারদের জন্য লড়াই করার পুঁজিটাও দিতে পারেননি। তারপরও লজ্জা এড়ানোর একটা লক্ষ্য ঠিক করে নিতে পারতেন বোলাররা। কিন্তু সেটাও আর হয়নি। বোলাররা যেন ঠিক করে নিয়েছিলেন, ব্যাটসম্যানরা এমনভাবে ব্যর্থ হয়েছে, আমরা কেন কষ্ট করে লড়ব? পার্থে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটা তাই ১২ ওভারেই জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া ১০ উইকেটের বড় ব্যবধানে। পার্থে অস্ট্রেলিয়ার সামনে লক্ষ্য ছিল মাত্র ১০৭ রানের। স্বাগতিক দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার আর অ্যারন ফিঞ্চ দলকে কোনো বিপদেই পড়তে দেননি। উদ্বোধনী জুটিতেই খেলা শেষ করে দিয়েছেন তারা। ওয়ার্নার ৩৫ বলে ৪৮ আর ফিঞ্চ ৩৬ বলে ৫২ রানে অপরাজিত থাকেন।

x