পঞ্চম শ্রেণি পাসের আগেই ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি!

পিইসি ফলাফলের আগে ভর্তি বন্ধের নির্দেশ

আজাদী প্রতিবেদন

শুক্রবার , ২৯ নভেম্বর, ২০১৯ at ৪:৫৮ পূর্বাহ্ণ
1042

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এক অসুস্থ প্রতিযোগিতায় প্রতারণার শিকার হতে চলেছে পটিয়ার দুইটি নামকরা উচ্চ বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার আগেই ভর্তির পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ১ থেকে ১০ ডিসেম্বরের মধ্যেই ভর্তির নির্দেশনা জারি করা হয়েছে পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ও আবদুস সোবহান রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে। ইতোমধ্যে ভর্তির আবেদন নেয়াসহ ভর্তি পরীক্ষাও সম্পন্ন করেছে স্কুল দুটি। তবে পিইসি’র ফলাফলের আগে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি বন্ধের জন্য স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক।
জানা যায়, ১৮৪৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় (পটিয়া স্কুল)। নানা বাদ বিবাদের কারণে ১৯১৪ সালে পটিয়া স্কুলের লাগোয়া প্রতিষ্ঠিত হয় আবদুস সোবহান রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়। এটি রাহাত আলী স্কুল হিসেবে পরিচিত। সেই থেকে দুই স্কুলের সাথে শিক্ষা, সংস্কৃতি, খেলাধুলায় প্রতিযোগিতা চলে আসছে। বিগত সময়ে এ প্রতিযোগিতার শিকার হয়ে আসছে দুই স্কুলের শিশু শিক্ষার্থীরাও। শিক্ষকদের অপরাজনীতিও রয়েছে বলে জানান ভুক্তভোগী অভিভাবকরা। তবে প্রতিষ্ঠান দুটি পটিয়া উপজেলার প্রথম সারির স্কুল হিসেবে স্বীকৃত।
এদিকে গত কয়েক বছর ধরে পিইসি পরীক্ষার শেষ হতে না হতেই স্কুল দুটিতে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির প্রস্তুতি শুরু হয়। তারই ধারাবাহিকতায় ২০১৯ সালের পিইসি পরীক্ষা শেষ হওয়ার পরের দিনই ২৬ নভেম্বর ২০২০ সালের ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয় আবদুস সোবহান রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়। পরের দিন ২৭ নভেম্বর ৩৬৯ জনের মেধা তালিকা প্রকাশ করে ১ থেকে ১০ ডিসেম্বরের মধ্যেই ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির নির্দেশনা দেয়া হয় স্কুলটিতে। অন্যদিকে ২৭ নভেম্বর ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে গতকাল (বৃহস্পতিবার) ২১৬ জনের মেধা তালিকা প্রকাশ করে পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়। রাহাত আলী স্কুলের মতো পটিয়া স্কুলেও ১ ডিসেম্বর থেকে ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে ভর্তির নির্দেশ দেয়া হয়। পটিয়া স্কুলে ভর্তি হতে সবমিলিয়ে ১৫২০ টাকা (জানুয়ারি মাসের বেতনসহ) এবং রাহাত আলী স্কুলে ১২০০ টাকা জমা দেয়ার জন্য প্রতিষ্ঠান দুটির বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শহীদুল ইসলাম দৈনিক আজাদীকে বলেন, ‘আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যেই ফলাফল তৈরি করে আমরা অধিদপ্তরে পাঠিয়ে দেব। এরপর অধিদপ্তর সব জেলার ফলাফল সমন্বয় করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে সিডিউল নির্ধারণ করা ফলাফল ঘোষণা করবেন। স্বাভাবিকভাবে প্রতিবছর এ ফলাফল ২৮ ডিসেম্বরের আগেই হয়।’
জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন দৈনিক আজাদীকে বলেন, ‘পিইসিতে ফলাফল ঘোষণার আগে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি করানোর নিয়ম নেই। আমি বিষয়টি জানতাম না। এখন খোঁজ নিয়ে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেব। কারণ সরকারি নিয়মের বাইরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই। যারা ভর্তি হবে তারা আমাদেরই সন্তান। শিশুদের নিয়ে এ ধরণের প্রতিযোগিতা সমীচিন নয়।’
এবিষয়ে আবদুস সোবহান রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন দৈনিক আজাদীকে বলেন, ‘ দেশে প্রতিবছর ১ জানুয়ারি বই উৎসব হয়। তাই আমরা আগেভাগেই ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির কাজটি শেষ করি। কারণ পিইসি পরীক্ষার ফলাফলের পর ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু করলে ১ জানুয়ারির আগে নতুন শিক্ষার্থীদের ভর্তি কষ্টকর হয়ে পড়বে। তাছাড়া আমি যোগদান করেছি ২০১৪ সালে। তার আগে থেকেই এই প্রক্রিয়া চলে আসছিল।’
তবে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির পর পিইসিতে ফেল করলে ভর্তি ফি হিসেবে নেয়া টাকা ফেরত দেয়া হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করছি, আমাদের ভর্তি পরীক্ষায় পাসের পর কেউ পিইপিতে ফেল করবে না। তবে গত বছর পিইসিতে পাস করার পরও ফেল করেছে দাবি করে এক শিক্ষার্থী ভর্তির টাকা ফেরত নিয়েছিল। সেজন্য আগামীতে ভর্তির পর ভর্তি ফি হিসেবে নেয়া টাকা ফেরত দেয়া হবে না।’
এব্যাপারে পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম দৈনিক আজাদীকে বলেন, ‘আমরা আগে থেকেই ২৬ নভেম্বর ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা দিয়েছিলাম। পরে দেখি রাহাত আলী স্কুল ২৬ নভেম্বর ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা দেয়ায় আমরা ইউএনও’র সাথে কথা বলে ২৭ তারিখ ভর্তি পরীক্ষা নিয়েছি।’ তিনি বলেন, ‘পিইসিতে পাস করার আগে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি করানোর প্রক্রিয়াটি আগে থেকেই শুরু করেছে রাহাত আলী হাইস্কুল। সেক্ষেত্রে প্রতিযোগি প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমাদের বেকায়দায় পড়তে হয়। তাই আমরাও একই সময়ে শিক্ষার্থী ভর্তি করানোর পদক্ষেপ নিয়েছি। এবিষয়ে উপজেলা প্রশাসন অবগত রয়েছে।’
এব্যাপারে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন দৈনিক আজাদীকে বলেন, ‘পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের আগে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির সুযোগ নেই। কারণ পিইসি পাশের পর শিক্ষার্থীরা নির্দিষ্ট ওই স্কুলে পড়বেন এমন তো নয়। এভাবে ভর্তিরও সুযোগ নেই। এ বিষয়ে স্কুল দুটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আমি ইতোমধ্যে পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছি।’

x