দুর্বল লেভান্তের মাঠে হেরে গেল বার্সেলোনা

শনিবার , ১২ জানুয়ারি, ২০১৯ at ৪:৪৯ পূর্বাহ্ণ
36

মৌসুমটা বেশ ভালই কাটছে বার্সেলোনার। লিগ টেবিলে তারা এখন সবার উপরে। দারুণ খেলছেন দলের সেরা তারকা লিওনেল মেসি। সে সাথে লুই সুয়ারেসও খেলছেন দারুণ। সব মিলিয়ে বেশ ভালই চলছে বার্সেলোনার জয় রথ। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতে হঠাৎ করেই ছন্দ পতন দ্বিতীয় সারির বার্সেলোনার। দ্বিতীয় সারির এই অর্থে যে, কোপা দেল রে কাপের এই ম্যাচটিতে বেশিরভাগ তারকা ফুটবলারকে বসিয়ে রাখেন বার্সেলোনা কোচ। আর সেটাই কাল হয়েছে তার দলের জন্য। হারতে হয়েছে টানা ৯ ম্যাচে অপরাজিত থাকার পর। উজ্জীবিত লেভান্তের মাঠে চেনা ছন্দে দেখা মেলেনি বার্সেলোনার। কোপা দেল রের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে প্রতিপক্ষের মাঠে হেরে গেছে এরনেস্তো ভালভেরদের শিষ্যরা। লিওনেল মেসি ও লুইস সুয়ারেসসহ নিয়মিত একাদশে অনেককে বাইরে রেখে খেলতে নামা শিরোপাধারীদের বৃহস্পতিবার রাতে ২-১ গোলে হারায় লা লিগায় পয়েন্ট তালিকায় দশম স্থানে থাকা লেভান্তে।
সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর হারের স্বাদ পেল বার্সেলোনা। এর আগে সবশেষ তারা হেরেছিল গত ১১ নভেম্বর, লা লিগায় রিয়াল বেতিসের কাছে ঘরের মাঠে ৪-৩ গোলে। এই ম্যাচে বল দখলে বার্সেলোনা অনেকটা এগিয়ে থাকলেও আক্রমণে আধিপত্য বিস্তার করে লেভান্তে। আর সে সুবাধে খেলার চতুর্থ মিনিটে ম্যাচের প্রথম সুযোগ পেয়ে এগিয়েও যায় স্বাগতিকরা। হেডের সাহায্যে গোলটি করেন উরুগুয়ের ডিফেন্ডার এরিক কাবাকো। অষ্টাদশ মিনিটে টানা চারবারের চ্যাম্পিয়নদের হতবাক করে দিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বোরহা মায়োরাল। সতীর্থের বাড়ানো বল ডি-বঙে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ঠান্ডা মাথায় ডাচ গোলরক্ষক ইয়াসপের সিলেসেনকে পরাস্ত করেন রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক এই ফরোয়ার্ড।
এর দুই মিনিট পরেই প্রথমার্ধে নিজেদের সেরা সুযোগটি পায় বার্সেলোনা। গোলরক্ষককে একা পেয়েছিলেন উসমান দেম্বেলে। কিন্তু তার শট দারুণ নৈপুণ্যে রুখে দেন স্প্যানিশ গোলরক্ষক ফের্নান্দেস। ফলে প্রথমার্ধে হতাশ হয়ে বিরতিতে যেতে হয় বার্সেলোনাকে।
দ্বিতীয়ার্ধের দশম মিনিটে আবারও সিলেসেনের পরীক্ষা নেন মায়োরাল। তবে এ যাত্রায় বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন বার্সেলোনার দ্বিতীয় পছন্দের গোলরক্ষক। আট মিনিট পর তাকে একা পেয়ে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার লুইস মোরালেস উড়িয়ে মারলে আবারও বেঁচে যায় প্রতিযোগিতাটির সর্বোচ্চ ৩০ বারের চ্যাম্পিয়নরা। নাহয় তখন ব্যবধান হতে পারতো ৩-০। তখন বার্সার জন্য লজ্জাটা আরো বড় হতে পারতো। খেলার ৮৫তম মিনিটে স্পট কিকে ব্যবধান কমিয়ে রোমাঞ্চকর শেষের সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন ফিলিপে কৌতিনিয়ো। শেষ পর্যন্ত অবশ্য সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে চলতি মৌসুমে তৃতীয় হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় লা লিগায় পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে থাকা দলটিকে। বদলি নামা স্প্যানিশ মিডফিল্ডার দেনিস সুয়ারেস ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টিটি পেয়েছিল অতিথিরা। ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ আটে ওঠার লক্ষ্যে আগামী বৃহস্পতিবার নিজেদের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে ফিরতি পর্বে মাঠে নামবে ভালভেরদের শিষ্যরা।

x