তরুণ প্রজন্মকে বিভ্রান্তকারীরা কখনো সফল হবে না

বঙ্গবন্ধু পরিষদের আলোচনা সভায় বক্তারা

শনিবার , ২৭ এপ্রিল, ২০১৯ at ১০:৩২ পূর্বাহ্ণ

বঙ্গবন্ধু পরিষদের আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, বাংলাদেশ সচিবালয়কে এখন থেকে মুজিবনগর সচিবালয় নামে অভিহিত করা হোক এবং একই সাথে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ভবনগুলো জাতীয় চারনেতার নামে নামকরণ করা হোক। এতে করে মুজিবনগর সরকার যে বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে অনন্য সাধারণ ভূমিকা রেখেছিল তা বর্তমান প্রজন্ম ও আগামী প্রজন্মের কাছে একটি গৌরব উজ্জ্বল ইতিহাস হিসেবে স্থান করে নেবে, চির জাগ্রত থাকবে। গতকাল শুক্রবার বঙ্গবন্ধু পরিষদ জেলা শাখার উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপিকা বেগম সৈয়দা তাহেরার সভাপতিত্বে ও অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুজিবনগর সরকার শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ডা. মু. আইয়ুবুর রহমান, চিটাগাং ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী, সাদার্ন ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার আলী আশরাফ, চবি লোকপ্রশাসন বিভাগের প্রফেসর হোসাইন কবির, চবি সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ মহিউদ্দীন। বক্তারা আরো বলেন, এই সরকার সারাবিশ্বে বাংলাদেশের বৈধতা ও পরবর্তীতে অর্জিত স্বীকৃতির ক্ষেত্রে একটা মাইলফলক। স্বাধীনতার যে ঘোষণাপত্র এখানে পাঠ করা হয় তা বাংলাদেশের সৃষ্টির জাতীয় ইতিহাসে রাষ্ট্র বিনির্মাণে একটি রূপরেখা হিসেবে আমাদের সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত এতে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে যে মুক্তিযুদ্ধ পরিচালিত তা তৎকালীন বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত ও প্রচারিত। আজকে একটি চক্র ইতিহাস বিকৃতির মাধ্যমে শাশ্বত ও অমোচনীয় এই ইতিহাসকে কলুষিত করতে চায়, তরুণ প্রজন্মকে যারা বিভ্রান্ত করতে চায় তাদের সেই অপচেষ্টা বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ, মুক্তিযোদ্ধা এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর অনুসারীরা কখনো সফল হতে দেবে না। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x