ঝুঁকিপূর্ণ সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রির অভিযোগ

মীরসরাইয়ে হাট-বাজারে অভিযান চালানোর দাবি

মাহবুব পলাশ, মীরসরাই

বৃহস্পতিবার , ১৩ জুন, ২০১৯ at ৪:৪৬ পূর্বাহ্ণ
17

আবাসিক ভবনে নতুন গ্যাস সংযোগ বন্ধ দীর্ঘদিন ধরে। ফলে গত চার বছরে দেশে এলপিজি সিলিন্ডারের ব্যবহার বেড়েছে কয়েকগুণ। চাহিদা বাড়ায় বাজারজাতকারী কোম্পানিগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতাও বেড়েছে। ফলে যেখানে সেখানে অবৈধভাবে মজুদ করে মেয়াদউত্তীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। পাশাপাশি ছাড়পত্র ছাড়াই এ কারবার চালিয়ে যাচ্ছে অধিকাংশ দোকান। আর এসব দোকানে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র না থাকায় বড় কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে তা প্রতিরোধ করা কঠিন বলে মন্তব্য সংশ্লিষ্টদের।
বিস্ফোরক পরিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, দেশে গত চার বছরে এলপি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি পাঁচগুণ বেড়েছে। সমপ্রতি জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ৯৫ শতাংশ দোকানে বিস্ফোরক পরিদপ্তরের লাইসেন্স ছাড়া এলপিজি সিলিন্ডার বিক্রির প্রমাণ পাওয়া গেছে।
সরেজমিনে দেখা যায়, মীরসরাই ও বারইয়াহাট দুই পৌরসভা ছাড়াও উপজেলার করেরহাট, মিঠাছরা, আবুতোরাব, শান্তিরহাট, আবুরহাট, জোরারগঞ্জ, বড়দারোগারহাট, বড়তাকিয়া ও নিজামপুরসহ ছোট বড় সকল হাট-বাজারের দোকানগুলোতে অবাধে বিক্রি হচ্ছে সিলিন্ডার গ্যাস। কিন্তু এসব দোকানের অধিকাংশতেই বিস্ফোরক পরিদপ্তরের লাইসেন্স নেই বলে অভিযোগ রয়েছে।
সংশ্লিষ্টরা অভিযোগ করেন, যথাযথ তদারকি না থাকায় দোকানদাররা লাইসেন্স ও অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ছাড়াই ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারছেন। তারা দ্রুত এসব দোকানে অভিযান চালানোর দাবি জানান।
এ বিষয়ে মীরসরাই সহকারি কমিশনার (ভূমি) রাশেদুল ইসলাম বলেন, আমরা অবৈধ ও ঝুঁকিপূর্ণ সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে শীঘ্রই আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।

x