চুনতির মাহফিলের খ্যাতি বিদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এমপি নদভী

বৃহস্পতিবার , ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ at ৪:০৭ পূর্বাহ্ণ
13

চট্টগ্রাম ১৫ সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আসনের সংসদ সদস্য ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী বলেন, আশেকে রাসুল হযরত শাহ মাওলানা হাফেজ আহমদ (র.) প্রকাশ শাহ্‌ সাহেব চুনতি প্রবর্তিত ১৯ দিনব্যাপী সীরাতুন্নবী (স.) মাহফিল এতদঞ্চলে নবীপ্রেমিক মুসলমানদের মিলনস্থল হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। এই মাহফিলের সুনাম ও খ্যাতি দেশের গন্ডি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে ছড়িয়ে পড়েছে। এমপি নদভী বলেন, আলেম ও ইসলামী স্কলারদের বিষয় ভিত্তিক আলোচনার সূত্রপাত মূলত: এই মাহফিল থেকেই শুরু। নিজের মরহুম পিতা আল্লামা ফজলুল্লাহকে এই মাহফিলের বিষয়ভিত্তিক প্রোগ্রামের রূপকার আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, যুগ ও সময়ের চাহিদা বিবেচনায় এনে বিশেষায়িত আলেমদের দিয়ে তিনি আমৃত্যু মাহফিল পরিচালনা করতেন।তিনি বলেন, মিলাদ ও সীরাত দুটি আরবি শব্দ। মিলাদ অর্থ জন্ম আর সিরাত শব্দের অর্থ জীবনচরিত। সীরাতুন্নবী (সা.) শিরোনামে যে মাহফিল হয় সেখানে রাসূলে পাক (সা.) এর জন্ম বৃত্তান্তকে বাদ দিয়ে জীবনচরিত আলোচনা হয় না, বরং জন্ম থেকে শুরু করে পুরো জীবনীই আলোচনা করা হয়। যার গুরুত্ব ও শিক্ষা প্রতি মুসলমানের জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ড. নদভী বলেন, ইসলাম শান্তি, সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যের ধর্ম। জোর জবর দস্তী, নৃশংসতা ও নিরপরাধ মানুষ হত্যা শান্তির ধর্ম ইসলাম কখনো স্বীকৃতি দেয় না। শান্তিপূর্ণ পথে থাকলে কোনো অশান্তির পথে যেতে ইসলাম অনুমোদন করেনি। তিনি পরিপূর্ণ জীবন ব্যবস্থা হিসাবে স্বীকৃত ইসলাম ধর্মকে নবী করিম (স.) অনুসৃত পন্থায় উপস্থাপনের জন্য আহ্বান জানান। তিনি গত ১০ নভেম্বর বাদ জোহর লোহাগাড়ার চুনতির ঐতিহাসিক ১৯ দিনব্যাপী ৪৯তম সীরাতুন্নবী (স.) মাহফিলের উদ্বোধন করতে গিয়ে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চুনতি হাকিমিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা হাফিজুল হক নিজামী। প্রবীণ শিক্ষাবিদ মাওলানা হাসান ছিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন লোহাগাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল, লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ তৌছিফ আহমদ, সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান মোল্যা, লোহাগাড়া থানার ওসি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।
এতে উপস্থিত ছিলেন- প্রবীণ আলেম কাজী নাছির উদ্দিন, মাওলানা ছরওয়ার কামাল আজিজী, মুহাদ্দিস মাওলানা শাহে আলম, মাওলানা মাঈনুদ্দিন রুহি, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক গোলাম ফারুক ডলার, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য আনোয়ার কামাল, সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মাস্টার ফরিদুল আলম, মোজাম্মেল হক, সাতকানিয়ার সাবেক পৌর মেয়র হাজী মোহাম্মদুর রহমান, লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন হিরু, সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ আহমদ লিটন, আওয়ামীলীগ নেতা আবু ছালেহ, সাতকানিয়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন হাসান চৌধুরী, সাতকানিয়া উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সাইদুর রহমান দুলাল, লোহাগাড়া উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মুহাম্মদ জহির উদ্দিন, শিল্পপতি আলহাজ্ব আব্দুস শুক্কুর, আলহাজ্ব মোহাম্মদুল হক মেহেদী, মাওলানা শাহ আবুল কালাম আজাদ, আব্দুল মালেক বিন দিনার নাজাত, তৈয়বুল হক বেদার, চুনতি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জনু, লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুচ্ছফা কোম্পানী, সাতকানিয়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নেজাম উদ্দিন, বড়হাতিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমডি জুনায়েদ, মাদার্শা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আ.ন.ম সেলিম চৌধুরী, ছদাহা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোসাদ হোছাইন চৌধুরী, এওচিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মানিক, কাঞ্চনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রমজান আলী, ঢেমশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রিদুওয়ান, কলাউজান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ, আমিরাবাদ ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ ইউনুছ ।

x