চর্চা ছাড়া কোনো কিছুর উৎকর্ষ সাধন হয় না : কামরুন মালেক

অডিও সিডির মোড়ক উন্মোচন

আজাদী প্রতিবেদন

শুক্রবার , ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ
19

শিল্পী শর্মিলা রায়ের একক সংগীত সন্ধ্যা ও অডিও সিডির মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে লায়ন্স জেলা গভর্নর কামরুন মালেক বলেন, চর্চা ছাড়া কোনো কিছুর উৎকর্ষ সাধন হয় না। সংগীত, বংশীবাদন এমনকি পড়ালেখায়ও চর্চার বিকল্প নেই।
দু’চোখ জড়ালো শিরোনামে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, গান অনেক পছন্দ করলেও গাইতে পারি না। তবে আমার দুই মেয়ে এক সময় ভালো গান গাইত। তাদেরকে নিয়ে আমি প্রায় সময় রামপুরা টিভি স্টেশনে যেতাম। আমার বড় মেয়ে নতুন কুঁড়িতে রবীন্দ্র সংগীত প্রতিযোগিতায় প্রেসিডেন্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিল।
আনন্দ সাংস্কৃতিক অংগনের উক্ত অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, শিল্পী শর্মিলা রায়ের নাম মনে দাগ কাটার মতো। সংগীত জগতে অনেক পুরস্কার তাঁর ঝুলিতে। স্বামী সিটি করপোরেশনের প্রকৌশলী ঝুলন কুমার দাশ লায়নিজমের সাথে সম্পৃক্ত। এদিক থেকে উনিও লায়ন পরিবারের সদস্য। শর্মিলা রায়কে নিয়ে আমরা গর্ব করি। তিনি নারী হিসেবে ঘরে বসে থাকার পরিবর্তে সংগীতকে মাধ্যম করে সুস্থ সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল গড়ে তোলার কাজ করে যাচ্ছেন।
স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে কামরুন মালেক বলেন, একটা সময় ছিল গান শুনলে সবকিছু ভুলে যেতাম। খাওয়া দাওয়ার কথাও মনে থাকতো না অনেক ক্ষেত্রে। বক্তব্যের শেষ পর্বে তিনি শর্মিলা রায়ের সাফল্য কামনা করেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আনন্দ সাংস্কৃতিক অংগনের প্রধান উপদেষ্টা ও সদ্য প্রাক্তন জেলা গভর্নর লায়ন নাসির উদ্দিন চৌধুরী, শর্মিলা রায়ের স্বামী প্রকৌশলী ঝুলন কুমার দাশ ও আনন্দ সাংস্কৃতিক অংগনের পরিচালক লিটন মিত্র। এসময় অতিথিবৃন্দ শিল্পী শর্মিলা রায়ের অডিও সিডির মোড়ক উন্মোচন করেন। শেষে মনোমুগ্ধকর সংগীতের পরিবেশন করা হয়।

x