চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ

এম. পারভেজ

শনিবার , ১১ মে, ২০১৯ at ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ
353

এসএসসি-২০১৯ এর ফলাফল নিয়ে চলছে নানা বিশ্লেষণ। চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের ৭৮% হারে পাশের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭,৩৯৩ জন। তন্মধ্যে ৬,৯৫৪ জনই বিজ্ঞান বিভাগের। অথচ সরকারি কলেজগুলোতে আসন সংখ্যা এর এক তৃতীয়াংশ প্রায়। অতএব প্রতিবছরের মত এবারও নগরীর খ্যাতিমান সরকারি কলেজগুলোতে ভর্তি হতে বিজ্ঞান শিক্ষার্থীদের প্রচন্ড প্রতিযোগিতার মধ্যে পড়তে হবে। যেখানে জিপিএ-৫-প্রাপ্তদেরই অনেকে সুযোগ পাবে না। সেখানে ৫-এর কম জিপিএধারীদের কথা বলাই বাহুল্য! তাই এই মুহূর্তে অভিভাবকের একমাত্র চাওয়া সরকারি কলেজে না হলেও ভাল একটি কলেজে সন্তানকে ভর্তি করানো। এক্ষেত্রে চট্টগ্রামের সচেতন অভিভাবকমহলের আস্থা অর্জন করে সার্বিক বিচারে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ। চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড ও শিক্ষামন্ত্রণালয় অনুমোদিত (EIIN-134780) এই কলেজটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই উন্নততর শিক্ষাপরিবেশ, নিয়মিত ক্লাস গ্রহণ, মাল্টিমিডিয়া প্রযুক্তির মাধ্যমে ক্লাসনির্ভর পাঠদান, এস এম এস এলার্টের মাধ্যমে ক্লাসে উপস্থিতি নিশ্চিতকরণ, মেধাবী শিক্ষকগণের তৈরি হ্যান্ডনোট, ছাত্রছাত্রীদের নিবিড় পরিচর্যা, দ্রুত সিলেবাস সমাপন, ক্লাস পরীক্ষা, সাপ্তাহিক ও মাসিক পরীক্ষা এবং ফাইনাল পরীক্ষার পূর্বে বোর্ড পরীক্ষার অনুরুপ মডেল টেস্ট গ্রহণ ইত্যাদি ব্যতিক্রমী পাঠপদ্ধতির মাধ্যমে নগরীর শিক্ষাঙ্গনে বিশেষ স্থান দখল করে নিয়েছে। এই সুনামের পরম্পরায় একই ট্রাস্টের অধীনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড ও শিক্ষামন্ত্রণালয় অনুমোদিত সিটি বিজ্ঞান কলেজ (EIIN-135345) এবং চট্টগ্রাম কমার্স কলেজ (EIIN-137811)।
সচেতন একজন অভিভাবক কেন এই কলেজকে বেছে নেবে?
এই প্রশ্নের জবাবে চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও অধ্যক্ষ ড. মো. জাহেদ খান বলেন, শুধুমাত্র বিজ্ঞান শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতিষ্ঠিত এই কলেজে ২০০৯ সাল থেকেই আমরা ডিজিটাল পদ্ধতিতে পাঠদান করে আসছি। এখানে রয়েছে ৩৫টি পূর্ণাঙ্গ মাল্টিমিডিয়া ক্লাস। এইচএসসি-তে পাঠ্যবই এর পাশাপাশি শতভাগ ভালো ফলাফলের জন্য বিষয়ভিত্তিক হ্যান্ডনোট প্রদান করা হয়। প্রতিটি টার্ম পরীক্ষা শুরুর আগে সিলেবাসে বিদ্যমান অধ্যায়গুলোর সলভশিট, ক্রিয়েটিভ শিট ও নোট সরবরাহ করা হয়। প্রতিদিন ক্লাসে নির্দিষ্ট বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক দ্বারা ক্লাসেই রিভিশনসহ বুঝানো, শিখানো ও আদায়ের ব্যবস্থা করা হয়। এতকিছুর পরও যারা খারাপ ফলাফল করে তাদের জন্য রয়েছে ডে-কেয়ার, যেখানে দৈনিক ৭-৮ ঘন্টা পড়িয়ে পাঠ আদায় করা হয়। ফলে কোনো শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট পড়তে হয় না। স্বয়ংক্রিয় Attendance Service এর মাধ্যমে অভিভাবক জানতে পারেন কলেজে তার সন্তানের আগমন ও প্রস্থানের সঠিক সময়। এ ছাড়াও জেএফ ট্রাস্ট প্রতি বছর বিনা বেতনে/অর্ধ-বেতনে অসচ্ছ্বল শিক্ষার্থীর পড়াশুনার দায়িত্ব নিয়ে থাকে। শিক্ষাবান্ধব এসব পদক্ষেপের কারণে প্রতি বছর অসংখ্য শিক্ষার্থী এইচএসসিতে A/A+ পেয়ে মেডিকেল / ইঞ্জিনিয়ারিং/ বিশ্ববিদ্যালয়ে-তে ভর্তির সুযোগ পাচ্ছে।
সাফল্যের সিঁড়ি : একজন সফল মেধাবী সৈয়দা আশরাফুন্নেসার অনুভুতি-এসএসসি-তে ভালো রেজাল্টের পর ইচ্ছে ছিল সরকারি কলেজে পড়ার। কিন্তু তা আর হল না। অনেক সংশয় নিয়ে বিজ্ঞান কলেজে ভর্তি হই। কিন্তু এখানকার অভিজ্ঞ শিক্ষকদের নিবিড় পরিচর্যার কারণে এসএসসি-র মতো এইচএসসিতেও জিপিএ-৫.০০ নিয়ে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় মেধা তালিকায় স্থান করে ২০১৭ সালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে সুযোগ পাই। এই কলেজ থেকে ২০১৮ সালে এইচএসসি তে জিপিএ-৪.৬ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়ে হুমাইদ এখন খুলনা মেডিকেল কলেজ এর ছাত্র এবং জিপিএ-৪.৫ পাওয়া ফাহিন এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গর্বিত শিক্ষার্থী। এরূপ অসংখ্য মেধাবী ছাত্রছাত্রীর গৌরবময় ভবিষ্যত নিশ্চিত করেছে চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ।
বিশেষ হ্যান্ডনোট : সাফল্যের প্রধান কৌশল সম্পর্কে বলতে গিয়ে অধ্যক্ষ বলেন, লেখাপড়ার বিষয়ে আমরা কোন ছাড় দেইনা। এখানে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে আমাদের বিশেষ হ্যান্ডনোট। অত্যন্ত অভিজ্ঞ ও বোর্ড পরীক্ষক শিক্ষকবৃন্দের সমন্বয়ে গঠিত বিশেষ প্যানেলের তত্ত্বাবধানে সৃজনশীল প্রশ্নপদ্ধতির আলোকে প্রতিটি বিষয়ে প্রস্তুতকৃত হ্যান্ডনোট ছাত্রছাত্রীদের কাছে ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। সহজবোধ্য ও কৌশলপূর্ণ এই নোট অনুসরণ করলে বোর্ড ফাইনাল পরীক্ষার জন্য আর কোন নোট বা গৃহশিক্ষকের প্রয়োজন হবে না। জাতীয় দিবস সমূহ পালন এবং সাংস্কৃতিক ও খেলাধূলা চর্চায়ও কলেজের আয়োজন বেশ প্রশংসনীয়। বিজ্ঞান মেলায় ও বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বেশ কয়েকবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ। ভর্তিজনিত যে কোন জটিলতা এড়াতে একটি বিশেষ পরামর্শ সেল গঠন করা হয়েছে, যেখানে পরামর্শ দেবেন অভিজ্ঞ শিক্ষকবৃন্দ। কেননা গত বছরেও কলেজ ভর্তির আবেদনে বিভিন্ন ত্রুটির কারণে অনেক শিক্ষার্থীকে নানা হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। মতি টাওয়ার (৫ম তলা), চকবাজার, চট্টগ্রাম এই ঠিকানায় এবং ০১৯৭৭-২৯১৮৮৮ নম্বরে যোগাযোগ করে কিংবা Chattagram Biggan College- ফেসবুকে লগইন করে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।

x