চকরিয়ায় পাহাড় ধসে ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রী নিহত

চকরিয়া প্রতিনিধি

রবিবার , ১৪ জুলাই, ২০১৯ at ৮:০৯ অপরাহ্ণ
56

কক্সবাজারের চকরিয়ায় পাহাড় ধসে ঘুমন্ত অবস্থায় নিহত হয়েছেন স্বামী ও স্ত্রী।

অতি ভারী বর্ষণের সময় আজ রবিবার (১৪ জুলাই) ভোররাত তিনটার দিকে মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পাহাড়ি এলাকা বমু বিলছড়ি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের বমুরকূল এলাকায়।

নিহতরা হলেন ওই এলাকার মৃত রবিউল আলমের পুত্র দিনমজুর আনোয়ার ছাদেক (৩৫) ও তার স্ত্রী ওয়ালিদা বেগম (২২)।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান।

তিনি জানান, উঁচু পাহাড়ের পাদদেশে দিনমজুর আনোয়ার ছাদেকের বাড়ি। প্রতিদিনের মতো শনিবার রাতেও তারা ঘুমিয়ে পড়ে কিন্তু মধ্যরাতে হওয়া অতি ভারী বর্ষণের সময় পাহাড়ের বিশাল অংশ ধসে পড়ে তাদের মাটির ঘরের উপর। এতে মাটি চাপা পড়ে ঘুমন্ত অবস্থায়ই মারা যায় স্বামী-স্ত্রী। তবে এ সময় বাড়িতে অন্য কোনো সদস্য ছিলেন না।

বমু বিলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মতলব জানান, যেখানে পাহাড় ধসে নিহতের ঘটনাটি ঘটেছে সেখানে তাৎক্ষণিক যাওয়ার কোনো উপায় নেই। তাই স্থানীয়রা মাটি সরিয়ে নিহত স্বামী-স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করে প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে দাফন করে ফেলে।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, ‘বমু বিলছড়ি ইউনিয়নে পাহাড় ধসে নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেয়া হবে। এছাড়া যেখানে বসতবাড়িগুলো পাহাড় ধসের ঝুঁকিতে রয়েছে তাদেরকে সরানোর তৎপরতা চলছে।’

এদিকে চকরিয়া ও পেকুয়ায় বন্যা পরিস্থিতি মারাত্মক রূপ নিয়েছে। দুই উপজেলার ২৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার এমন কোনো গ্রাম অবশিষ্ট নেই বানের পানিতে তলিয়ে যায়নি। একদিকে সমুদ্র উত্তাল থাকায় জোয়ারের প্রভাব, অন্যদিকে অতিবর্ষণের সঙ্গে মাতামুহুরী নদীতে নেমে আসা উজানের পানিতে চকরিয়া ও পেকুয়ায় ভয়াবহ বন্যায় খাবার ও বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকটে মানবিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছেন প্রায় ৫ লক্ষাধিক মানুষ।

x