গাড়ির চাকায় ধ্বংস করা হলো মেয়াদোত্তীর্ণ তরল দুধ

পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

আজাদী প্রতিবেদন

মঙ্গলবার , ১৪ আগস্ট, ২০১৮ at ৮:২০ পূর্বাহ্ণ
40

প্রাইভেট কারের চাকার নিচে ফেলে ধ্বংস করা হয়েছে মেয়াদোত্তীর্ণ জব্দকৃত কেক, দুধ, নডুলস, জুস ও চকলেট। একইসাথে পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে ৮০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। গতকাল সোমবার নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব খাদ্যসামগ্রী ধ্বংস করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। ধ্বংসকৃত খাদ্যসামগ্রীর ওজন ৫০ কেজি হবে। গতকাল নগরীর গোসাইলডাঙ্গা, হাজিপাড়া, জুবলী রোড ও কাজীর দেউড়িতে পরিচালিত দু’টি পৃথক অভিযানে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়। অধিদফতরের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাশ জানিয়েছেন, সহকারী পরিচালক নাসরিন আক্তার নগরের গোসাইলডাঙ্গা ও হাজিপাড়া এলাকায় তদারকিমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এ সময় হাজিপাড়া এলাকার বিসমিল্লাহ জেনারেল স্টোরে বিক্রির জন্য রাখা মেয়াদোত্তীর্ণ পান্তুরিত তরল দুধ ও নুডলস পাওয়ায় প্রতিষ্ঠানটিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া গোসাইলডাঙ্গা এলাকায় ছাপানো নিউজপ্রিন্ট দিয়ে কেক তৈরি ও কারখানার নোংরা পরিবেশের জন্য মা স্টার বেকারিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া বিকাশ চন্দ্র দাশ নিজেই অভিযান পরিচালনা করে জুবিলি রোডের বৈশাখী রেস্তোরাঁকে সংবাদপত্রে খাবার সংরক্ষণ ও খাবারে অননুমোদিত ফ্লেভার ব্যবহারের জন্য ১৫ হাজার টাকা, নোংরা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের জন্য লাভ লেনের গাউসিয়া হোটেলকে ৫ হাজার টাকা এবং অতিরিক্ত মূল্যে পানীয়, মেয়াদোত্তীর্ণ চকলেট, জুস, ক্যান্ডি বিক্রির জন্য সংরক্ষণ করায় কাজীর দেউড়ির ভিআইপি টাওয়ারের চকোফ্যাকশন রেস্টুরেন্টকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর এ সময় জব্দকৃত দুধ, কেক, নডুলস, জুস ও চকলেট প্রাইভেট কারের চাকার নিচে ফেলে ধ্বংস করেছে।

x