কোচ ডোমিঙ্গো যেতে চাইলেও পাকিস্তান যেতে চান না মুশফিক

ক্রীড়া প্রতিবেদক

শুক্রবার , ১৭ জানুয়ারি, ২০২০ at ৫:৪০ পূর্বাহ্ণ

নানা জল ঘোলার পর অবশেষে নিষ্পত্তি হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পাকিস্তান সফর। তিন ধাপে বাংলাদেশ দল পাকিস্তান সফর করবে। এখন সফরের প্রস্তুতির পালা। যদিও সে প্রস্তুতি দু’একদিনের মধ্যেই শুরু করতে যাচ্ছে বিসিবি। আর এরই মধ্যে পাকিস্তান সফরের প্রস্তুতি নিতে ছুটি শেষ করে ঢাকা চলে এসেছেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। এ দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ এখন রাজধানীতে। এসেছেন গত ১৩ জানুয়ারি সোমবার। সেদিন থেকে শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বিপিএলের কোয়ালিফায়ার ম্যাচও দেখছেন। এদিকে জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানান পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে যাওয়ার আগে ১৯ জানুয়ারি থেকে যে তিন দিনের অনুশীলন ক্যাম্প শুরু হবে। তার পরিচালনায়ও থাকবেন রাসেল ডোমিঙ্গো। এ ভিনদেশি কোচের পাকিস্তান যাওয়া নিয়ে খানিক সংশয় থাকলেও তিনি পাকিস্তান যাবেন এমন কথাও জানিয়েছেন নান্নু। তবে বেঁকে বসেছেন বাংলাদেশ দলের উইকেট রক্ষক মুশফিকুর রহিম। তিনি পাকিস্তান সফরে যেতে চান না। পাকিস্তানে যাওয়া উপলক্ষে যে জিও (গভর্নমেন্ট অর্ডার) নেয়া হয়েছিল, তাতে সাক্ষর করেননি মুশফিকুর রহিম। কারণ একটাই তিনি পাকিস্তান যাবেন না। এখন পর্যন্ত যেটা খবর তা হচ্ছে পাকিস্তান সফরে মুশফিকুর রহিম জাতীয় দলের সঙ্গী হচ্ছেন না। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হোসেন পাপনও কদিন আগে তা প্রকাশ্যেই জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন মুশফিক বলেছে, সে পাকিস্তান যাবে না। কিন্তু গত বুধবার রাত পর্যন্ত মুশফিক এ ব্যাপারে বোর্ডে বা নির্বাচকদের কাছে কোনোরকম চিঠি দেননি। নিয়ম অনুযায়ী তাকে লিখিতভাবে জানাতে হবে, আমি এই কারণে সফরে যেতে অপারগতা প্রকাশ করছি।
এদিকে আজকালের মধ্যে জাতীয় দল ঘোষণার কথা থাকলেও প্রধান নির্বাচক জানিয়েছেন তারা আগে কোচের সঙ্গে বসবেন। তারপর ১৫ জনের দল চূড়ান্ত করা হবে। কোচও এসে কয়েকজনের খেলা দেখেছেন। আজ শুক্রবার বিপিএলের ফাইনালেও কয়েকজনকে পরখ করবেন কোচ। তারপর কোচের মত নিয়েই পাকিস্তান সফরের দল চূড়ান্ত করা হবে। তবে আগামীকাল শনিবারের আগে দল ঘোষণার সম্ভাবনা কম বলেই জানালেন প্রধান নির্বাচক।
এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানান, মুশফিক নির্বাচকদের কোনো চিঠি দেয়নি। সে যে পাকিস্তান যাবে না বা যেতে চাচ্ছে না, এটা লিখিত দিতে হবে। সেটা নিয়ম ও রীতির আওতায়। যতক্ষণ পর্যন্ত না আমরা লিখিতভাবে মুশফিকের কোনো চিঠি পাবো ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা তাকে পাকিস্তানের সফরের জন্য পাওয়া যাচ্ছে বলেই ধরে রাখব। তবে নান্নু স্বীকার করেছেন, মুশফিকের সঙ্গে তার ব্যক্তিগতভাবে কথা হয়েছে। মুশফিক বলেছেন, তিনি যাবেন না পাকিস্তান। তখন তিনি মুশফিককে বোর্ডে চিঠি বা নির্বাচকদের বরাবর চিঠি দিয়ে পাকিস্তান যেতে না পারার কথা জানাতে বলেছেন। ধারণা করা হচ্ছে, আগে না দিলেও আজকালের মধ্যে আনুষ্ঠানিক চিঠি দিয়ে দেবেন মুশফিক। তবে মুশফিক ছাড়া আর কোন ক্রিকেটার পাকিস্তান সফর থেকে বিরত থাকতে চান কিনা তা জানা যায়নি। যদিও বাংলাদেশ দলের স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টরি পাকিস্তান যাবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন আগেই। তাই এখন দেখার বিষয় আজ কালের মধ্যে আর কোন ক্রিকেটার পাকিস্তান সফর থেকে নিজেদের সরিয়ে রাখে কিনা। তাহলে নির্বাচকদের দল ঘোষণা করতে সুবিধা হবে।