কেরালার ক্লাবটির বিপক্ষে জয়ই একমাত্র লক্ষ্য বসুন্ধরা কিংসের

ক্রীড়া প্রতিবেদক

মঙ্গলবার , ২২ অক্টোবর, ২০১৯ at ৫:১১ পূর্বাহ্ণ
29

বাংলাদেশের ফুটবলে বসুন্ধরা কিংস দলটি এসেছে একেবারে ধুমকেতুর মত। প্রথম খেলতে এসেই বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জিতে চমক দেখিয়েছে বসুন্ধরা। শুধু তাই নয় ফেডারেশন কাপের শিরোপা হাতছাড়া করলেও স্বাধীনতা কাপের শিরোপাও জিতেছিল বসুন্ধরা। আর সে হিসেবে এবারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের আট দলের মধ্যে অন্যতম ফেভারিট বসুন্ধরা কিংস। আজকের টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বসুন্ধরা কিংসের শ্রী গোকুলাম কেরালা এফসি। যারা ভারতের অন্যতম মর্যাদাকর ট্রফি ডুরান্ড কাপ জিতে এসেছে। তারপরও বসুন্ধরা কোচ অস্কার ব্রুসনের চাওয়া ভারতের দলটির বিপক্ষে দাপুটে ফুটবল খেলে জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করা। এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে আজ মঙ্গলবার ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সন্ধ্যা ৭টায় মুখোমুখি হবে দুই দল। কলকাতার দুই ঐতিহ্যবাহি দল ইস্টবেঙ্গল ও মোহনবাগানের মতো দলকে হারিয়ে আসা এই কেরালা এফসিকে সমীহের চোখে দেখছে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসের কোচ।
আজকের ম্যাচকে সামনে রেখে গতকাল বেশ ভোরেই অনুশীলনে নেমে পড়ে বুসন্ধরা কিংস। লম্বা সময় অনুশীলন করে ঘাম ঝরিয়েছে বিপিএল চ্যাম্পিয়নরা। এখন মাঠে তার প্রতিফলন ঘটাতে চান দলটির কোচ। শীষ্যদের কাছে এখন সেরাটাই তার একমাত্র চাওয়া। বসুন্ধরা কোচ বলেন কেরালার দলটি সমপ্রতি ডুরান্ড কাপের শিরোপা জিতেছে। সেমি-ফাইনালে ইস্টবেঙ্গলকে আর ফাইনালে মোহনবাগানকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে শ্রী গোকুলাম কেরালা এফসি। প্রতিপক্ষ হিসেবে কেরালার দলটিকে বেশ শক্তিশালী মনে করেন বসুন্ধরা কিংস কোচ। আর তাই এই দলটির বিপক্ষে সতর্ক হতে হবে বলেও শীষ্যদের জানিয়ে দেন তিনি। তবে বসুন্ধরা কিংস কোচ বলেণ আশা করি আমরা তাদের আক্রমণকে নিস্ক্রিয় করে ম্যাচটা নিয়ন্ত্রণ করতে পারব । তিনি বলেণ মাঠে আমাদেরকে শক্তিশালী দল হতে হবে । আর আমি আশা করি ছেলেরা সেটা পারবে।
দলে বেশ কয়েকজন বিদেশী ফুটবলার থাকলেও বসুন্ধরা কোচের সবচাইতে নির্ভরতা হচ্ছে কোস্টারিকার হয়ে বিশ্বকাপ খেলা দেনিয়েল কলিন্দ্রেস সোলেরা, লেবাননের স্ট্রাইকার জালাল কুদো, কিরগিজস্তানের বখতিয়ার দুইশবেকভ। এদের নিয়ে দারুন আশাবাদি কিংস কোচ। তিনি বলেন এরা ছাড়াও বিজেএমসি থেকে এলিটা কিংসলেকে এবারে দলে নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন আমাদের চাওয়া মৌসুমের শেষ পর্যন্ত সে আমাদের সঙ্গে থাকবে। এছাড়া দেনিয়েল ও বখতিয়ারের মত খেলোয়াড় রয়েছে যারা খেলার জন্য তৈরি। নতুন তারকা জালালকে আমরা দলে টেনেছি। শুধু এই টুর্নামেন্ট নয়, পুরো মৌসুমে সে একটা সেনসেশন হতে পারে বলে মনে করেন কিংস কোচ। পাশাপাশি রবিউল হাসান, বিশ্বনাথ ঘোষদের মত খেলোয়াড়রা আসায় কিংস এখন ভারসাম্যপূর্ণ দল বলেও মনে করেন ব্রুসন।
বসুন্ধরা কোচ বলেন গত বছর আমাদের কিছু সমস্যা হয়েছিল। কারণ তখন দলে পর্যাপ্ত ভারসাম্য ছিল না। এ বছর চিত্র পুরোপুরি ভিন্ন। এবার আমাদের দলের সবাই ভালো খেলোয়াড়। আমরা এরই মধ্যে বেশ কিছু ভাল খেলোয়াড় নিয়েছি। তিনি বলেন দলে যারা তরুন খেলোয়াড় রয়েছে তারা কঠোর পরিশ্রম করছে । কারন তারা জানে নিজের পজিশন ধরে রাখতে হলে পরিশ্রমের কোন বিকল্প নেই। কিংস কোচ বলেন আমাদের দলটির অবস্থা এমন হয়ে দাড়িয়েছে যে, প্রতি ম্যাচের সেরা একাদশ সাজাতে গিয়ে মধুর সমস্যায় পড়তে হবে আমাদের। তবে আমাদের লক্ষ্য প্রত্যেককে সুযোগ দেওয়া। যাতে করে আমরা সঠিক ফরমেশন তৈরি করতে পারি। যদিও এখানে খুব বেশি পরীক্ষা নীরিক্ষা করার সুযোগ নাই। তবে অনুশীলনে লন্ধ অভিজ্ঞতা কতটা কাজে লাগাতে পারবে ফুটবলাররা সেটাও পরখ করে দেখতে হবে আমাদের। কারন শুধু এই টুর্নামেন্ট নয়, পুরো মৌসুমের জন্য আমাদের এই দলটিকে তৈরি করতে হবে। তবে আপাতত তাদের সামনে লক্ষ্য এই শেখ কামাল ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের শিরোপা জেতা। তবে সে লক্ষ্যে পৌছাতে হলে আগে শুরুটা ভাল করতে হবে। যা আজ কেরালার দলটিকে হারিয়ে করতে চায় বসুন্ধরা কিংস।

x