কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের আদলে চবির শহীদ মিনার

সহযোগিতায় কেএসআরএম গ্রুপ

শুক্রবার , ১ মার্চ, ২০১৯ at ৬:৩৪ পূর্বাহ্ণ
68

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী ঢাকাস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের কাঠামোর আদলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জয়বাংলা ভাস্কর্যের দক্ষিণ-পূর্ব পার্শ্বে নির্মিতব্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় নতুন শহীদ মিনারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।
এ সময় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে উপাচার্য বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম শহীদ মিনারটি ১৯৯১ সালে ঘূর্ণিঝড়ে বিধ্বস্ত হওয়ার পর ১৯৯৩ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি বিএনপি-জামায়াত সরকারের তৎকালীন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নতুন শহীদ মিনার নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। বর্তমানে থাকা শহীদ মিনারটি পাকিস্তানের লাহোরে নির্মিত কথিত ‘মিনার-এ পাকিস্তান’ নামে একটি স্থাপনার আদলে নির্মাণ করা হয়। এর উপরে আনারসের আদলে একটি প্রতীক স্থাপন করা হয়; যা নিয়ে সেই সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে অসন্তোষ দানা বাঁধে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ সত্ত্বেও সেটি নির্মাণ করা হয়। সুধীমহলের মতে, তা ভাষা আন্দোলনের বীর শহীদদের প্রতি অবমাননার শামিল।
তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দায়িত্ব গ্রহণের পর শহীদ মিনারটির পরিবর্তন করে নতুন শহীদ মিনার নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। বর্তমানে এটির যে কাঠামো রয়েছে তা আমরা ‘বিজয় স্তম্ভ’ হিসেবে রাখব। তবে এর অবয়ব কিছুটা পরিবর্তন করা হবে। এটির উপরে আনারস সদৃশ যে প্রতীক রয়েছে সেটি অপসারণ করে সেখানে জাতীয় পতাকা স্থাপন করা হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন, চবি সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, ফাইন্যান্স কমিটির সদস্যবৃন্দ, অনুষদসমূহের ডিনবৃন্দ, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, রেজিস্ট্রার, হলসমূহের প্রভোস্টবৃন্দ, বিভাগীয় সভাপতি, ইনস্টিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালকবৃন্দ, প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টরবৃন্দ, প্রধান প্রকৌশলী, কেএসআরএম গ্রুপের সহকারী ম্যানেজার এমডি আবু সুফিয়ান ও মিজানুল হক প্রমুখ। মোনাজাত পরিচালনা করেন, চবি কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব হাফেজ আবু দাউদ মুহাম্মদ মামুন। প্রসঙ্গত, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন (পিএন্ডডি) কমিটির ৩০৭তম সভায় শহীদ মিনার অনুমোদন করা হয়। এতে সহযোগিতা করছে কেএসআরএম গ্রুপ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x