কাইজেনের গুরুত্ব অনুসরণ করে প্রতিষ্ঠানে কর্মদক্ষতা বাড়াতে হবে : মেয়র

বুধবার , ২০ নভেম্বর, ২০১৯ at ৪:০০ পূর্বাহ্ণ
8

সিটি গভর্নেন্স প্রজেক্টের আওতায় জাইকা আয়োজিত ‘কাইজেন’ বিষয়ক দিনব্যাপী কর্মশালায় সিটি মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, ‘কাইজেন’ একটি জাপানি শব্দ। এর অর্থ হচ্ছে দলীয় প্রচেষ্টা। দলগত ভাবে নগর সেবাকে নাগরিকের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে সকল বিভাগে কাইজেন বাস্তবায়ন করা সময়ের দাবি। নগরের সেবাদানকারী সংস্থাকে দলগত সমন্বয়ে কাজ করার মধ্য দিয়ে নগর উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হবে। গত সোমবার টাইগারপাস চসিক সম্মেলন কক্ষে কাইজেন বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন।
এতে সভাপতিত্ব করেন চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা। কর্মশালায় তথ্যচিত্র উপস্থাপন করেন সিনিয়র গভারনেন্স স্পেশালিষ্ট মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। কর্মশালায় চসিক সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী প্রধান প্রকৌশলী লে.কর্ণেল সোহেল আহমেদ, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া,নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আফিয়া আক্তার,স্পেসাল ম্যাজিস্ট্রেট জাহানারা ফেরদৌস,মেয়রের একান্ত সচিব আবুল হাসেম, কর্পোরেশনের বিভাগীয় ও শাখা প্রধানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সিটি মেয়র বলেন, নগর সেবায় চসিকের ৯ হাজার ৬’শ কর্মকর্তা কর্মচারীকে প্রত্যক্ষ তদারকি করা একজন মেয়রের পক্ষে অসম্ভব। স্ব স্ব বিভাগের উপর অর্পিত দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাকেই এই দায়িত্ব পালন করতে হবে। পরিবর্তনের মধ্য দিয়েই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এই পরিবর্তনের নেপথ্য শক্তি হল সরকারি, বেসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিটি সেবা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীরা। তাদেরকে এই সত্য অনুধাবন করতে হবে। সিটি মেয়র কাইজেনের গুরুত্ব ও পদ্ধতি অনুসরণ করে প্রতিষ্ঠানের ক্রমাগত কর্মদক্ষতা উন্নয়নে সকলকে সচেষ্ট হওয়ার পরামর্শ দেন। তিনি সিটি কর্পোরেশনের প্রতিটি বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদের মধ্যে কাইজেন সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা দেয়ার জন্য বিভাগীয় প্রধানদের নির্দেশনা দেন। মেয়র সম্মিলিত প্রচেষ্টায় নিরাপদ,পরিচ্ছন্ন ,পরিবেশ বান্ধব ও বাসযোগ্য নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে সকলের প্রতি আহবান জানান।
কর্মশালায় ক্ষুদ্র উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়ন সহায়িকা, কাইজেনের প্রয়োজনীয়তা ও কর্মপরিকল্পনা ইত্যাদি বিষয়ে ধারণা দেয়া হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি ।

x