করোনা আক্রান্ত কণিকার বিরুদ্ধে মামলা

রবিবার , ২২ মার্চ, ২০২০ at ১১:২৮ পূর্বাহ্ণ
143

মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রুখতে বিদেশফেরতদের নির্দিষ্ট সময় কোয়ারেন্টিাইনে থাকার যে নির্দেশনা দেয়া ছিল তা অবজ্ঞা করায় বলিউডের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী কনিকা কাপুরের বিরুদ্ধে মামলা করেছে লক্ষ্ণৌ পুলিশ। দিনদশেক আগে লন্ডন থেকে ফেরা কনিকার দেহে শুক্রবার কভিড-১৯ ধরা পড়ে বলে জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস। যুক্তরাজ্য থেকে ফেরার পর কোয়ারেন্টাইনে থাকার যে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল, কনিকা তা না মেনে উল্টো বেশ কয়েকটি পার্টি ও অনুষ্ঠানে যান বলে অভিযোগ পুলিশের। সেসব পার্টি ও অনুষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক, আমলা ও বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাসহ প্রায় সাড়ে ৩০০ থেকে ৪০০-র মতো মানুষ ছিল। খবর বিডিনিউজের।
‘বেবি ডল’ গানে কণ্ঠ দেয়ায় সুপরিচিত কনিকা বলছেন, যুক্তরাজ্য থেকে ফেরার পর লক্ষ্ণৌ বিমানবন্দরে করোনাভাইরাসজনিত স্বাস্থ্য পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন তিনি। সেসময় সব স্বাভাবিকই ছিল; দেহে ভাইরাসের উপসর্গগুলো মাত্র চারদিন আগে ধরা পড়ে বলেও দাবি তার। কনিকার করোনাভাইরাস ‘পজেটিভ’ হওয়ার পরপরই পুলিশ তার বিরুদ্ধে মামলা করে বলে গতকাল শনিবার জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস। কনিকার বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অমান্য এবং সংক্রমণ বা রোগ ছড়িয়ে মানুষের জীবন বিপদাপন্ন করার অভিযোগ আনা হয়েছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন। এসব অভিযোগে বলিউডের এ শিল্পীর জরিমানা বা কারাদণ্ড কিংবা উভয় দণ্ডই হতে পারে। কনিকা এখন লক্ষ্ণৌর কিং জর্জ মেডিকেল ইউনিভার্সিটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। লন্ডন থেকে ফেরার পর তার সঙ্গে রাজস্থানের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে, তার ছেলে দুষ্মন্ত সিং এবং উত্তর প্রদেশ সরকারের কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তার সাক্ষাৎ হয়েছিল। শুক্রবার সন্ধ্যায় বসুন্ধরা রাজে জানান, কনিকার করোনাভাইরাস শনাক্তের খবর পাওয়ার পরপরই তিনি এবং তার ছেলে স্বেচ্ছায় নিজেদের কোয়ারেন্টাইন করেছেন, সব ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থাও মেনে চলছেন। কনিকার সঙ্গে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে থাকা কংগ্রেস নেতা জিতিন প্রসাদ এবং উত্তর প্রদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জয় প্রতাপ সিংও স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টাইনে আছেন বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো।