করোনায় আক্রান্ত দিবালা, মালদিনি, ফেলাইনি

স্পোর্টস ডেস্ক

সোমবার , ২৩ মার্চ, ২০২০ at ১২:০২ অপরাহ্ণ
70

জুভেন্টাসের তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার পাওলো দিবালা। এদিকে এসি মিলানের সাবেক তারকা ইতালিয়ান ডিফেন্ডার পাওলো মালদিনির দেহেও এই ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। আক্রান্ত হয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক মিডফিল্ডার বেলজিয়ান ফুটবলার মারোয়ানি ফেলাইনি। ইতালির কিংবদন্তি ফুটবলার পাওলো মালদিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেও তার শারীরিক অবস্থা এখন বেশ ভালো বলে জানিয়েছে তার ক্লাব এসি মিলান। বর্তমানে ক্লাবটির টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পদে থাকা মালদিনি এবং তার ছেলে ও যুব দলের ফরোয়ার্ড দানিয়েলও কভিড-১৯ টেস্টে পজিটিভ বলে শনিবার একই বিবৃতিতে জানায় ক্লাব কর্তৃপক্ষ। ‘করোনায় আক্রান্ত একজনের সংস্পর্শে আসার বিষয়টি বুঝতে পেরেছিলেন পাওলো মালদিনি। এরপর এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কিছু উপসর্গ তার মধ্যে দেখা যায়। গত শুক্রবার তার পরীক্ষা করা হয় এবং রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তার ছেলে দানিয়েলের ক্ষেত্রেও বিষয়টি একই।’ ‘পাওলো ও দানিয়েলে ভালো আছে। নিয়ম অনুযায়ী এরই মধ্যে তারা বাইরের কারও সংস্পর্শ ছাড়া বাড়িতে দুই সপ্তাহ কাটিয়েছে। পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠতে প্রয়োজনীয় আরও সময় নিজেদের কোয়ারেন্টিনে রাখবেন তারা।’
ফুটবল জগতকে অনেক তারকা ডিফেন্ডার উপহার দেওয়া ইতালির ইতিহাসের অন্যতম সেরা ডিফেন্ডার হিসেবে বিবেচিত মালদিনি। খেলোয়াড়ী জীবনের পুরোটা সময় এসি মিলানেই কাটিয়ে দিয়েছেন তিনি। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে ক্লাবের হয়ে জিতেছেন পাঁচটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও সাতটি সেরি আসহ অনেক শিরোপা। আর দানিয়েলের এই মৌসুমেই মিলানের হয়ে অভিষেক হয়েছে।
এদিকে জুভেন্টাসের আর্জেন্টাইন ফুটবলার পাওলো দিবালা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। একই সঙ্গে তার বান্ধবী ওরিয়ানাও কভিড-১৯ টেস্টে পজিটিভ এসেছেন বলে নিজেই শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছেন এই ফরোয়ার্ড। ‘আমি আপনাদের জানাতে চাই যে আমি ও ওরিয়ানা দুজনেই কভিড-১৯ টেস্টে পজিটিভ রিপোর্ট পেয়েছি। সৌভাগ্যবশত আমরা ভালো অবস্থায় আছি। আপনাদের বার্তার জন্য ধন্যবাদ।’
এর আগে জুভেন্টাসের আরও দুজন ফুটবলার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন, ব্লেইস মাতুইদি ও দানিয়েলে রুগানি। জুভেন্টাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে রুগানি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই দলটির সব খেলোয়াড় অন্যদের থেকে নিজেদের আলাদা করে রেখেছেন। এখনও তারা সেল্‌্‌ফ আইসোলেশনে থাকবেন বলে ক্লাবটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
সদ্য চীনে ফেরা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক মিডফিল্ডার মারোয়ানি ফেলাইনিও আক্রান্ত হয়েছেন করোনাভাইরাসে। বেলজিয়ান ফুটবলারের কভিড-১৯ টেস্টে পজিটিভ হওয়ার বিষয়টি রোববার নিজেদের ওয়েবসাইটে জানায় তার চাইনিজ সুপার লিগের ক্লাব শানডং লুনেং। গত জানুয়ারিতে চাইনিজ দলটিতে যোগ দেন ফেলাইনি। ক্লাবে যোগ দিতে গত শুক্রবার চীনে ফেরার পর পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। তবে তার শরীরে কোনো উপসর্গ দেখা দেয়নি। তাকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে বলে বিবৃতিতে জানায় ক্লাবটি। গত ২২ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়ার কথা ছিল চাইনিজ সুপার লিগ। অনুমতিভাবে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। দেশটির শীর্ষ ফুটবল প্রতিযোগিতায় প্রথম ফুটবলার হিসেবে ফেলাইনির শরীরে এই ভাইরাস ধরা পড়ল।