কক্সবাজারে সুশীল সমাজের ২৫ ইয়াবা কারবারির তালিকা

আহমদ গিয়াস, কক্সবাজার

বৃহস্পতিবার , ১৮ জুলাই, ২০১৯ at ৯:৪৬ অপরাহ্ণ
145

কক্সবাজারে সুশীল সমাজের আড়ালে থাকা ২৫ মুখোশধারী ইয়াবা কারবারির একটি তালিকা তৈরি করেছে জেলা পুলিশ।

তালিকাটিতে জনপ্রতিনিধি, প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা, সাংবাদিক ও ব্যবসায়ীর নাম রয়েছে এবং এটি খুব শীঘ্রই জেলা প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

চলতি বছরের শুরুর দিকে দ্বিতীয় দফায় দেশব্যাপী মাদকবিরোধী কঠোর অভিযান শুরু হলে তা থেকে বাঁচতে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে টেকনাফে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আত্মসমর্পণ করে ১০২ জন ইয়াবা কারবারি।

আত্মসমর্পণ করা এসব ইয়াবা কারবারিকে জিজ্ঞাসাবাদের পর জানা যায় চাঞ্চল্যকর নানা তথ্য।

এসময় পুলিশ জানতে পারে সুশীল সমাজের আড়ালে থাকা ছদ্মবেশী ও ভয়ংকর কয়েকজনের তথ্য।

তারপর অভিযুক্তদের ওপর দীর্ঘ গোয়েন্দা নজরদারির পর সম্প্রতি ঘটনার ব্যাপারে পুলিশ শতভাগ নিশ্চিত হয়ে ওই তালিকা তৈরি করে বলে জানান পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসাইন।

তিনি জানান, তালিকাভুক্ত ওই ‘এলিটদের’ মাঝে জনপ্রতিনিধি, প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা, সাংবাদিক ও ব্যবসায়ীও রয়েছে যাদেরকে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে।

‘কেউ আইনের উর্ধে নয়’ মন্তব্য করে পুলিশ সুপার আরো জানান, ছদ্মবেশী ওই সুশীল ইয়াবা কারবারিরা এখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারিতে রয়েছে।

এ তালিকাটি খুব শীঘ্রই জেলা প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান তিনি। এ সম্পর্কে গত ১৪ জুলাই মাসিক আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় আলোচনা হয়েছে।

গত বছরের মে মাসে দেশব্যাপী শুরু হওয়া মাদকবিরোধী অভিযানে কক্সবাজার জেলা থেকে এ পর্যন্ত ডজনখানেক মিয়ানমার নাগরিক ছাড়াও শতাধিক বাংলাদেশী নাগরিক নিহত হয়েছে যাদের মধ্যে কয়েকজন নারীও রয়েছে। তারপরও ইয়াবা কারবার বন্ধ করা সম্ভব হয়নি। তবে যেকোনো মূল্যে কক্সবাজার জেলা থেকে ইয়াবাসহ মাদকের কারবার নির্মূল করা হবে বলে জানান পুলিশ সুপার।

তিনি বলেন, ‘ইয়াবা কারবারিরা নিবৃত্ত না হওয়া পর্যন্ত কঠোর থেকে কঠোরতম অভিযান চলবে। তাদেরকে কোনোভাবেই ছাড় দেয়া হবে না।

অভিযানের পাশাপাশি ইয়াবা কারবারিদের অর্জিত সম্পদ জব্দ করতেও আলাদাভাবে কাজ করছে সিআইডি পুলিশ। ইতোমধ্যে তারা টেকনাফের কয়েকজন ইয়াবা কারবারির সম্পদ জব্দ করেছে।

কক্সবাজার চেম্বার অভ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ সভাপতি আবু মোর্শেদ চৌধুরী খোকা মনে করেন সুশীল সমাজের আড়ালে থাকা ভয়ংকর ইয়াবাবাজদের মুখোশ উম্মোচন করা উচিৎ। এ লক্ষ্যে সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে সমন্বিতভাবে কাজ করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

x