কক্সবাজারে শুকনাছড়ি বনাঞ্চলে পুনর্বাসনের চেষ্টাকারীদের উপর বনকর্মীদের গুলিবর্ষণ

কক্সবাজার প্রতিনিধি

বুধবার , ২০ নভেম্বর, ২০১৯ at ১০:১৯ অপরাহ্ণ

কক্সবাজার শহরের সমুদ্র সৈকতের বাতিল প্লট থেকে কয়েকদিন আগে উচ্ছেদকৃত ২ শতাধিক মানুষকে শুকনাছড়ি বনাঞ্চলে পুনর্বাসনের জন্য জড়ো করা হয়েছে।

এ নিয়ে বনবিভাগ ও সামাজিক বনায়নের আওতায় প্লট প্রাপ্ত উপকারভোগীদের সাথে উচ্ছেদকৃত লোকজনের মাঝে উত্তেজনা চলছে।

শহরতলীর শুকনাছড়ি স্টেশনে জড়ো হওয়া এসব লোকজনকে ছত্রভঙ্গ করতে আজ বুধবার (২০ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বনকর্মীরা চার রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেছে।

কক্সবাজার শহরের সুগন্ধা পয়েন্ট সমুদ্র সৈকত ও সেখানকার বাতিল প্লট থেকে গত কয়েকদিন আগে শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

এ নিয়ে উচ্ছেদকৃতরা গত কয়েকদিন ধরেই পৌরসভা কার্যালয় ঘেরাওসহ প্রশাসনের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামে।

এরই জের ধরে সদর উপজেলা ভূমি অফিস উচ্ছেদকৃত লোকজনকে শুকনাছড়ি বনাঞ্চলে পুনর্বাসনের জন্য শুকনাছড়ি স্টেশনে জড়ো হতে বলে।

বুধবার সকাল থেকেই ঘরবাড়ি তৈরির ঘেরাবেড়াসহ অন্যান্য সরঞ্জাম নিয়ে শুকনাছড়ি স্টেশনে হাজির হয় শহরের সমুদ্র সৈকত এলাকা থেকে উচ্ছেদ হওয়া ২ শতাধিক মানুষ।

এ নিয়ে বনবিভাগ ও সামাজিক বনায়নের আওতায় প্লট প্রাপ্ত উপকারভোগীদের সাথে উচ্ছেদকৃত লোকজনের মাঝে উত্তেজনা দেখা দেয়।

শুকনাছড়ি বনাঞ্চলে ঘরবাড়ি তৈরি করতে আসা ব্যক্তিদের দাবি, ভূমি বিভাগের লোকজন কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানের উপস্থিতিতে পুনর্বাসনের জন্য তাদের জমি বুঝিয়ে দেবেন। তবে ভূমি বিভাগ বা মেয়র কেউই রাত পর্যন্ত জমি বুঝিয়ে দিতে না এলেও ঘরবাড়ি তৈরির জন্য জড়ো হওয়া লোকজন সেখানেই অবস্থান নেয়।

এদিকে বনাঞ্চলে যাতে কোনো প্রকার বসতি তৈরি করতে না পারে সেজন্য বনকর্মী ও সামাজিক বনায়নের উপকারভোগীরাও ঘটনাস্থলে অবস্থান গ্রহণ করে।

এ নিয়ে উত্তেজনার এক পর্যায়ে আজ রাত সাড়ে ৯টায় চার রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে বনকর্মীরা। পরে বনকর্মীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করলে ফের জড়ো হতে শুরু করে উচ্ছেদ হওয়া লোকজন।

x