এলসিডি পর্দার নিচেই ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার

বুধবার , ১১ মার্চ, ২০২০ at ১০:৩০ পূর্বাহ্ণ
66

প্রথমবারের মতো ডিভাইসের এলসিডি পর্দার নিচেই ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার বসিয়েছে স্মার্টফোনে চীনা ব্র্যান্ড রেডমি। রেডমি নোট ৮ প্রোটোটাইপ ডিভাইসে এটির ডেমোও দেখিয়েছেন প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ড ব্যবস্থাপক লু ওয়েইবিং। স্মার্টফোনের সামনে বাড়ছে পর্দার মাপ, আর সরু হচ্ছে বেজেল। ফলে ডিভাইসের সামনে জায়গা হচ্ছে না ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারের। ডিভাইসে তাই ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার বসাতে উদ্ভাবনী পথ খুঁজছে স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। ওয়েইবিং বলেন, এলসিডি পর্দার নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার বসানোর মূল সমস্যা হলো ‘ইনফ্রারেড হাই-ট্রান্সমিটেন্স ফিল্মের’ ব্যবহার, যার মাধ্যমে আঙ্গুলের ছাপ স্ক্যান করা হয়। এই বাধা পেরিয়েছে রেডমি’। খবর বিডিনিউজের।
এর আগে পর্দার নীচে স্ক্যানার এনেছে বেশ কিছু স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। সেক্ষেত্রে রয়েছে কিছু সীমাবদ্ধতা। এই স্ক্যানারগুলো সাধারণত অপটিকাল সেন্সর, যা আঙ্গুলের ছবি তুলে তা মজুদ করা ছবির সঙ্গে মিলিয়ে থাকে। আর এগুলো ব্যবহার করা যায় শুধু এলইডি পর্দার নীচে। আর এই সেন্সরগুলো আগের মতো দ্রুতগতিরও হয় না এবং অনেক সময়ই আঙ্গুলের ছাপ ঠিক মতো মেলাতেও পারে না। বর্তমানে স্মার্টফোনগুলোর পেছনে বা পাশের দিকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার বসাচ্ছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। এদিকে অ্যাপল এগিয়েছে আরও এক ধাপ। ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার পুরোপুরি বাদ দিয়ে ফেইস আইডি যোগ করা হয়েছে নতুন আইফোনগুলোতে। এলসিডি প্যানেলের নীচে কীভাবে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার বসানো যায় ২০১৯ সালে তার উপায় বের করেছে কিছু চীনা প্রতিষ্ঠান। এবার তার ব্যবহার দেখা যেতে পারে রেডমি স্মার্টফোনে।