এপেক্স জেলা-৩ এর সম্মেলন

সোমবার , ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ at ৬:০৪ পূর্বাহ্ণ

এপেঙ ক্লাব অব বাংলাদেশের অন্তর্গত জেলা-৩ এর ৪০তম বার্ষিক সম্মেলন আগ্রাবাদ হোটেলের ইছামতি হলে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠান চলে সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। এবারের সম্মেলনের আয়োজক এপেক্স ক্লাব অব নোয়াপাড়া। সম্মেলনটিকে পাইওনিয়ার এপেক্স হিসেবে নামকরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. শিরীণ আখতার, বিশেষ অতিথি ছিলেন ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট এপেক্সিয়ান এম এ কাইয়ুম চৌধুরী, ন্যাশনাল ভাইস প্রেসিডেন্ট নিজাম উদ্দিন পিন্টু, সাবেক জাতীয় সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন সেবুল, এপেক্স বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মফিজউদ্দিন কামাল, এলজিপিএনপি এম কুতুবউদোল্লাহ, ডা. জবিউল, শাহ আলম নিপু, এ আর খান, আনিছুজ্জামান সাথিল, খোরশেদুল আলম অরুন, ইয়াছিন চৌধুরী, মোশাররফ হোসেন চৌধুরী মিশু, অ্যাড. আয়াছুর রহমান, ড. এস এম হাসান আলী প্রমুখ।
সম্মেলনে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন পিডিজি-০৩ এপে. এ্যাড. কামাল উদ্দিন। সচিবের দায়িত্ব পালন করেন পিডিজি-০৩ এপে. এ্যাড. মীর ফেরদৌস আলম সেলিম। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ডিজি-০৩ এপে. এ্যাড. আরশাদুর রহমান রিটু। সম্মেলন বিষয়ে রিটু বলেন, এপেক্সে প্রতি বছরের শেষ পর্যায়ে সবার দৃষ্টি থাকে জেলা সম্মেলনের দিকে। কারণ সম্মেলনেই ডেলিগেটদের ভোটে জেলার আগামী এক বছরের নেতা নির্বাচিত হয়। ইতোমধ্যে এপেক্স বাংলাদেশের নয়টি জেলার মধ্যে সাতটি জেলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এবারের সম্মেলনে ডিজি প্রার্থী ছিলেন তিন জন। তারা হলেন, বান্দরবান ক্লাবের সাবেক সভাপতি এপে. কামাল পাশা, চট্টগ্রাম ক্লাবের সাবেক সভাপতি এপে. জাকির হোসেন এবং চিটাগাং সেন্ট্রালের এপে. বেলাল হোসেন। ডেলিগেটদের সরাসরি ভোটে এপেক্স ক্লাব অব সেন্ট্রালের প্রেসিডেন্ট এপেক্সিয়ান বেলাল ২০২০ সেবা বর্ষের জেলা গভর্নর হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। সম্মেলনে ১৫টি চার্টার্ড ক্লাবের ৩০ জন ডেলিগেট ভোটাধিকার প্রয়োগ করে আগামীর নেতা নির্বাচিত করেন। সম্মেলনের শেষ পর্বে চলতি বছরের কার্যক্রমের উপর ভিত্তি করে ক্লাব এবং এপেক্সিয়ানদের পুরস্কৃত করেন জেলা গভর্নর। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x