এগারো জাতিসত্তাকে এক প্ল্যাটফর্মে এনেছিলেন এম এন লারমা

আলোচনা সভায় বক্তারা

রবিবার , ১০ নভেম্বর, ২০১৯ at ৪:১৬ পূর্বাহ্ণ
6

জুম্ম জাতীয়তাবাদের প্রবক্তা এম এন লারমা। গতকাল শনিবার তার ৩৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নগরীর সুপ্রভাত স্টুডিও হলে ‘মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা ও বর্তমান আন্দোলনে তার প্রাসঙ্গিকতা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সিএইচটি মিররের সম্পাদক ত্রিরত্ন চাকমা। মিটন চাকমার সঞ্চালনায় সভায় মূলপ্রবন্ধ পাঠ করেন সোহেল চাকমা। এম এন লারমার সংক্ষিপ্ত জীবনী পাঠ করেন সন্তু চাকমা। বক্তব্য দেন জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের নেতা ভুলন ভৌমিক ও শিক্ষক মাইদুল ইসলাম। সভায় এসিং মং মারমা বলেন, এম এন লারমা পার্বত্য চট্টগ্রামের ১১টা জাতিসত্তাকে এক প্ল্যাটফর্মে এনে সংগ্রাম করেছেন, যা পাবর্ত্য চট্টগ্রামের ভৌগোলিক ও বাস্তব পরিস্থিতিতে অত্যন্ত যুগোপযোগী। মৃত্যুর এত বছর পরও পার্বত্য চট্টগ্রামের বর্তমান আন্দোলনে তিনি এখনো প্রাসঙ্গিক। অথচ তার অনুসারীদের অনেকেই আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়ে পড়েছে। এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে এম এন লারমাসহ পার্বত্য চট্টগ্রামের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। উল্লেখ্য, ১৯৮৩ সালের ১০ই নভেম্বর নিজের গড়া জনসংহতি সমিতির ‘বাদী’ দলের সদস্যদের হামলায় আট সহযোগীসহ নিহত হন এম এন লারমা।

x