একাদশে সর্বোচ্চ দশ কলেজে আবেদনের সুযোগ

গতবারের নিয়মেই ভর্তি

রতন বড়ুয়া

মঙ্গলবার , ১৭ এপ্রিল, ২০১৮ at ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ
211

এবারের (২০১৮ সালের) এসএসসির ফলাফল প্রকাশের সম্ভাব্য সময় নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৬ মে। ফল প্রকাশের পরপরই শুরু হবে একাদশে ভর্তি প্রক্রিয়া। বিগত তিন বছরের ধারাবাহিকতায় একাদশে ভর্তিতে এবারও শতভাগ কলেজেই অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। অনলাইন প্রক্রিয়ার বাইরে কোন কলেজই ম্যানুয়ালি (আগের নিয়মে) ভর্তি প্রক্রিয়া চালাতে পারবে না। আর অনলাইন ও মোবাইল ফোনের এসএমএস (দুই মাধ্যম) মিলিয়ে সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে আবেদনের সুযোগ থাকছে এবার। এর বেশি কলেজে আবেদনের সুযোগ পাবে না শিক্ষার্থীরা। আন্তঃ শিক্ষাবোর্ড সমন্বয় সাবকমিটির সভা সূত্রে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। গত ১০ এপ্রিল ঢাকা শিক্ষাবোর্ডে আন্তঃ শিক্ষাবোর্ড সমন্বয় সাবকমিটির এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান ও আন্তঃ শিক্ষাবোর্ড সমন্বয় সাবকমিটির সভাপতি প্রফেসর মু. জিয়াউল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর শাহেদা ইসলামসহ দেশের সবকয়টি শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান অংশ নেন।

গতবারের নিয়মেই একাদশে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়েছে জানিয়ে বৈঠকে অংশ নেয়া প্রফেসর শাহেদা ইসলাম বলেন, একাদশে ভর্তিতে গতবারের প্রক্রিয়ায় তেমন সমস্যা দেখা যায়নি। টুকটাক যেটুকু সমস্যা হয়েছে তা আবেদনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের নিজেদের ভুলের কারণে। শিক্ষার্থীরা নিজেরাই কলেজ পছন্দের ক্ষেত্রে ভুল করেছিল। যা প্রক্রিয়াগত কোন দুর্বলতা নয়। এ বিষয়গুলো সভায় আলোচনা হয়েছে। বড় ধরনের কোন দুর্বলতা না পাওয়ায় গতবারের নিয়মই বহাল রাখার পক্ষে অধিকাংশ বোর্ড চেয়ারম্যান মত দিয়েছেন। আলোচনার পর সর্বসম্মতিতে এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়েছে। অর্থাৎ ভর্তিতে গতবারের নীতিমালাই থাকছে। উল্লেখযোগ্য তেমন পরিবর্তন থাকছে না। আর আবেদনের ক্ষেত্রে কলেজ বাছাইয়ের বিষয়ে এবার আরো স্পষ্টতা আনার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে প্রফেসর শাহেদা ইসলাম বলেন, অনলাইনে হোক কিংবা এসএমএসএ হোক, অথবা দুটি মাধ্যমেই হোক; একজন শিক্ষার্থী ১০টির বেশি কলেজে আবেদন করতে পারবে না। সবমিলিয়ে ১০টি কলেজই পছন্দ করতে পারবে। কয়েকদিনের মধ্যে একাদশে ভর্তি সংক্রান্ত নীতিমালার খসড়া চূড়ান্ত হতে পারে বলেও জানান প্রফেসর শাহেদা ইসলাম।

এদিকে, গতবারের নিয়মে এসএসসির ফলাফলের ভিত্তিতে একজন শিক্ষার্থীকে একটি মাত্র কলেজে ভর্তির জন্য মনোনীত করা হবে। আর মনোনীত ওই কলেজেই ভর্তি হতে হবে সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীকে। এক্ষেত্রে মেধা তালিকায় মনোনীত হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট কলেজে (মনোনীত কলেজে) বোর্ডের রেজিস্ট্রেশন বাবদ নির্দিষ্ট অংকের টাকা (গতবার ছিল ১৮৫ টাকা) জমা দিয়ে নিশ্চায়ন করতে হবে। তবে আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে পরে মাইগ্রেশনের (অন্য কলেজে ভর্তি স্থানান্তরের) আবেদন করার সুযোগ পাবে শিক্ষার্থীরা।

আবেদনের ক্ষেত্রে ভর্তিচ্ছু চাইলে অনলাইনে একবার আবেদনের মাধ্যমে একই সাথে দশটি কলেজে আবেদন করতে পারবে। সেক্ষেত্রে ফিও দিতে হবে একবার। কিন্তু অনলাইনে না করে মুঠোফোনের এসএমএস’র মাধ্যমে করতে গেলে দশটি কলেজের জন্য দশবার আবেদন করতে হবে। এতে ফিও দিতে হবে দশবার। তাই আবেদনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের অনলাইনকেই (ওয়েবসাইটের মাধ্যমে) বেছে নেওয়া শ্রেয় বলে মনে করেন শিক্ষাবোর্ড সংশ্লিষ্টরা। উল্লেখ্য, একাদশে ভর্তির আবেদন বা ভর্তি প্রক্রিয়া শুরুর বিষয়ে এখনো পর্যন্ত সময় নির্ধারিত হয়নি। ভর্তি সংক্রান্ত নীতিমালার খসড়া চূড়ান্ত হলে আবেদন ও ভর্তি প্রক্রিয়া শুরুর বিষয়ে (সময়সহ) বিস্তারিত জানা যাবে।

x