উপেক্ষা করার এই গুণ

ছৈয়দ মোহাম্মদ মোকাররম বারী

বুধবার , ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ at ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ
136

‘সবর’ মানে দুর্বলতা নয়। অনেকে মনে করে ধৈর্য ধরা মানে দুর্বলতা প্রকাশ। ‘সবর’ মানে- আপনার চারপাশের সবার হেদায়েত দরকার, আপনার এবং তাদের মাঝে দ্বীনের দাওয়াত ছাড়া অন্য কোনো বিষয়কে ইস্যু হিসেবে দাঁড় করবেন না। আপনাকে এ ক্ষেত্রে একটু কৌশলি চালাক হতে হবে। যদি তারা আপনাকে গালিগালাজ করে, তাদের পাল্টা গালি দিবেন না। তারা যদি আপনাকে আঘাত করে, পাল্টা আঘাত করতে যাবেন না। পাল্টা জবাব দেয়ার মাধ্যমে আপনি আসলে দাওয়াতী কাজ ছাড়া অন্য বিষয়গুলোকে ইস্যু হিসেবে দাঁড় করাচ্ছেন।
সবরের আরেকটা অর্থ হলো – ‘ই’রাদ।’ কুরআনে এই বিষয়ে বার বার আলোচনা করা হয়েছে। ‘ই’রাদ’ অর্থ উপেক্ষা করা, মুখ ফিরিয়ে নেয়া, এড়িয়ে চলা। যখনি আপনি এমন কিছু দেখেন যা আপনাকে ডিস্টার্ব করছে বা মর্মাহত করছে, সেটা উপেক্ষা করুন। উপেক্ষা করা শিখুন। আপনার ব্যক্তিগত এবং সামাজিক জীবনে এই ভালো গুণটি আয়ত্ত করার চেষ্টা করুন। অনেক সময়, যখন কোনো সমস্যাকে উপেক্ষা করা হয়, সমস্যাটির মৃত্যু ঘটে। কিন্তু যখন সমস্যাটির প্রতি মনোযোগ দেয়া হয়, সমস্যাটি আরো ব্যাপক আকার ধারণ করে। সকল নবী-রাসূলদের ‘ই’রাদ’ করার উপদেশ দেয়া হয়েছিল। এভাবে যখন আপনি উপেক্ষা করা শিখবেন, তখন নিজের জন্য অনেক সময় পাবেন, নিজেকে আরো সমৃদ্ধশালী করার সময় পাবেন। কিন্তু যদি আপনার ‘ই’রাদ’ না থাকে তাহলে অন্যদের জবাব দিতে দিতে আপনার প্রচুর সময় নষ্ট হয়ে যাবে। আপনার ‘ই’রাদ’ প্রয়োজন নিজেকে গঠন করার জন্য। তাই আমাদের সবার “ই’রাদ বা উপেক্ষা” করার এই গুণটি অর্জন করার চেষ্টা করতে হবে। কারো কোন কথার উত্তরে, উত্তেজিত হয়ে পাল্টা উত্তর না দিয়ে কথাটা কানে না নেওয়াটাও এক প্রকার জবাব।

x