ইন্দোনেশিয়া থেকে এল আরো ২২টি কোচ

সংযোজন হবে পূর্বাঞ্চলের কয়েকটি ট্রেনে

শুকলাল দাশ

বুধবার , ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ at ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ

ইন্দোনেশিয়া থেকে চট্টগ্রাম বন্দরে এল রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মিটারগেজের আরো ২২টি কোচ। গতকাল মঙ্গলবার রাতে পূর্বাঞ্চলের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে কোচগুলো জাহাজ থেকে খালাস করা হয়েছে। ইন্দোনেশিয়া থেকে ২০০ মিটারগেজ কোচ আমদানি প্রকল্পের গতকালের চতুর্থ চালানে ২২টিসহ মোট ৯২টি কোচ দেশে এসেছে বলে জানান রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের পাহাড়তলী কারখানার কর্মব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম।

পরিবহন ও মেকানিক্যাল বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গতকাল আসা কোচগুলো পাহাড়তলী কারখানায় ইন্দোনেশিয়ার প্রকৌশলীদের উপস্থিতিতে যৌথভাবে আনুষঙ্গিক সংযোজন ও রেললাইনে চলাচলের উপযোগী করে ট্রায়াল শেষে পূর্বাঞ্চলের উদয়ন, পাহাড়িকা, বিজয় এক্সপ্রেসে সংযোজন হবে।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের পরিবহন বিভাগের শীর্ষ এক কর্মকর্তা আজাদীকে জানান, ঢাকাচট্টগ্রামের চেয়ে চট্টগ্রামসিলেট এবং চট্টগ্রামময়মনসিংহগামী ট্রেনের বগিগুলোর অবস্থা খারাপ। চট্টগ্রামসিলেট রুটের সবচেয়ে জনপ্রিয় উদয়ন ও পাহাড়িকা এক্সপ্রেসের বগিগুলোর অবস্থা নাজুক।

পাহাড়তলী কারখানার কর্মব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম আজাদীকে জানান, ইন্দোনেশিয়া থেকে ২০০ পিটি ইনকা এমজি কোচ আমদানি করা হচ্ছে। মঙ্গলবার রাতে আমরা খালাস করেছি ২২টি কোচ। এর আগে তিন চালানে চট্টগ্রাম বন্দরে এসেছে ৭০টি কোচ। সব মিলে ৯২টি মিটারগেজ কোচ এসেছে। আগের তিন চালানের ৭০টি কোচের মধ্যে এখন পাহাড়তলী কারখানায় ৫টি এবং ঢাকায় ৮টি কোচ আছে। আজকে (মঙ্গলবার) আসা কোচগুলোসহ আগের ১৩টি পূর্বাঞ্চলের কয়েকটি ট্রেনে সংযোজন করা হবে।

পূর্বাঞ্চলের যান্ত্রিক বিভাগের সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা জানান, নতুন এই কোচগুলো উন্নতমানের। স্টেনলেস স্টিলের তৈরি। কোচগুলোতে বায়োটয়লেট যুক্ত থাকছে। প্লেনের মতো বায়োটয়লেট পদ্ধতি থাকায় রেললাইনে মলমূত্র পড়বে না। ফলে পরিবেশ দূষণ হবে না, ট্রেনগুলোও ব্যাকটেরিয়া ও দূষণমুক্ত থাকবে। এসব কোচ সহজে নষ্ট হবে না। প্রতিবন্ধীদের জন্য স্পেশাল চেয়ারের ব্যবস্থা রয়েছে। সামনে টেলিভিশনের মতো মনিটরিং পর্দা রয়েছে, ট্রেন কোথায় থামছে তা স্ক্রিনে দেখা যাবে। একইসঙ্গে কত গতিতে চলছে তাও দেখা যাবে। এর আগে দেশে এমন অত্যাধুনিক বগি আনা হয়নি। নতুন ২০০টি মিটারগেজ ক্রয়ে ৫৮০ কোটি টাকা ব্যয় হচ্ছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট প্রকল্প পরিচালক।

রেলওয়ের তথ্যমতে, বাংলাদেশ রেলওয়ের মিটারগেজ ও ব্রডগেজ প্যাসেঞ্জার ক্যারেজ সংগ্রহ প্রকল্পের অধীনে ইন্দোনেশিয়ার সরকারি প্রতিষ্ঠান পিটি ইনকা রেলওয়ে ইন্ডাস্ট্রি থেকে এসব মিটারগেজ কোচ আমদানি করা হয়েছে। এতে অর্থায়ন করেছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)

x