আমিরাতে বাংলাদেশী জনশক্তি নিতে শেখদের আগ্রহ

এম এ মন্নান, (আরব আমিরাত) থেকে

মঙ্গলবার , ২৮ জানুয়ারি, ২০২০ at ২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

সংযুক্ত আরব আমিরাতের শেখদের অর্থায়নে বাংলাদেশে জিসিসি সেন্টার,তাফ হিম সার্ভিস ও বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার সেন্টার খোলার মধ্য দিয়ে দেশটিতে বাংলাদেশী ভিসা বন্ধের ক্ষেত্রে অনেকখানি সমস্যা সমাধান হবে বলে মনে করেন দেশটির জিসিসি সেন্টারের চেয়ারম্যান শেখ মোহাম্মদ বিন রাশেদ আল মুয়াল্লা ও তাফ হিমের চেয়ারম্যান শেখ সাকার বিন মোহাম্মদ বিন হুমাইদ আল নুয়াইমি।

তাই আমিরাতের শেখদের অর্থায়নে এই তিনটি সেন্টার বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠা করার আগ্রহ প্রকাশ করেন তারা যদিও এই কাজগুলো বাংলাদেশ সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় করার কথা ছিল। কিন্তু তা না হওয়াতে দিন দিন আমিরাতে বাংলাদেশের নতুন করে জনশক্তি রপ্তানি বিলম্বিত হচ্ছে বলে তাদের ধারণা। তাই বাংলাদেশীদের পক্ষ হয়ে আমিরাতের শেখরাই এবার সমস্যা সমাধানের আগ্রহ প্রকাশ করেন।

এতে প্রবাসীরা বাংলাদেশ সরকার এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে আমিরাতে নতুন করে জনশক্তি রপ্তানিতে এগিয়ে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

গত রবিবার (২৬ জানুয়ারি) সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে তাদের কার্যালয়ে এমনটা জানান আমিরাতের শেখ পরিবারের এই দুই বিনিয়োগকারী সদস্য।

তারা এসময় সাংবাদিকদের বলেন, ২০১২ সালে আমরা যে সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিলাম তা কিন্তু শিক্ষার অভাবে হয়েছে, দেশের বা জাতীয়তার কারণে নয়। সংযুক্ত আরব আমিরাত সকল বিদেশি নাগরিকদের কল্যাণ, সুখ ও সংস্কৃতিকে স্বাগত জানিয়ে থাকে। বাংলাদেশের সাথে দেশটির খুব সু-সম্পর্ক রয়েছে। তাই আট বছর পর সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশের জনশক্তি খাত উন্মুক্ত করার লক্ষ্যে আমরা যে সকল বিষয়গুলো অনুসরণ করে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ মনে করছি সেগুলোর মধ্যে আছে ১) আমিরাতের অর্থায়নে বাংলাদেশে একটি জিসিসি সেন্টার, তাফ হিম সার্ভিস সেন্টার ও বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার সেন্টার তৈরি করা, ২) স্বল্প ব্যয়ে আমিরাতে কর্মী পাঠানো এবং জিসিসি সেন্টার এই প্রক্রিয়াটি নিয়ন্ত্রণ করবে, ৩) উভয় দেশের পুলিশের ছাড়পত্র একই স্থান থেকে প্রদান করা, ৪) এজেন্টদের থেকে কর্মীদের এক মাসের অগ্রিম বেতন প্রদান করা এবং জিসিসি সেন্টারের এই প্রক্রিয়াগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করা, ৫) আমিরাতে কর্মী পাঠানোর আগে কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেয়া। যেমন, সংযুক্ত আরব আমিরাত সম্পর্কে ধারণা দেয়া। দেশটির সংস্কৃতি, মুদ্রা ও আইন সম্পর্কে জানানো। এই বিষয়গুলো আমাদের তাফ হিম সেন্টার প্রোগ্রামের আওতায় আসবে।

কর্মীদের আমিরাতে আসার আগে প্রশিক্ষণ অপরিহার্য যাতে করে আমরা সুসম্পর্ক বজায় রাখতে পারি এবং প্রত্যেকের সংস্কৃতি ও আইনকে সম্মান করি। আমাদের কথা হলো সংযুক্ত আরব আমিরাতে দক্ষ এবং প্রশিক্ষিত কর্মী চাই। কর্মীদের জন্য এখানে ওয়াগি প্রটেকশন সিস্টেম (ডাব্লিউপিএস) এবং বীমা রয়েছে। এতে নিয়োগকর্তা ব্যর্থ হলে প্রত্যেককে সময়মতো পেমেন্ট গ্যারান্টিসহ প্রদান করতে হয়।

x