আমার স্বপ্ন ও আমার পৃথিবী

আশীষ সেন

সোমবার , ২৬ মার্চ, ২০১৮ at ৫:৩৩ পূর্বাহ্ণ
50

এক সময় ভালো লাগতো মৌসুমী ফুল,

উত্তাল রোদ্দুর ছেড়ে হেঁটে যেতে যেতে

উত্তরের হাওয়া, সবুজের ঘন বন।

রবীন্দ্র কাব্যের মত উজ্জ্বল শহর,

যাবতীয় মলিন দৃশ্যাবলি ভুলে

আমি চেয়েছিলাম সুখের

একটি খামারবাড়ি, আকাঙিক্ষত ফসলের দেশ

আমার ভালোবাসা আমার নির্মাণ।

এ শহরে দাবির ব্যানার নিয়ে

আমি আর কোনোদিন মিছিলে যাব না,

নাগরিক দেয়ালের বিশাল শরীর অবহেলায় পড়ে থাক।

আমি আর একটিও পোস্টার লাগাবো না

পলায়নবাদী মানুষের ভিড়ে।

একদিন ভাবতাম, কবিরাই পারে, করে দিতে

ওলটপালট, পারে

নিষ্ঠুর শব্দাবলি বাতিল করে, মানবতার মুক্তির

গান গেয়ে যেতে।

অভিমানে শহীদের মতো আছে বিক্ষুব্ধ শব্দেরা

নির্ভয়ে ছুঁয়ে আসে আমার এই চিন্তার জমিন,

আমি জীবনের চাষাবাদে হয়ে যাই প্রাচীন কৃষক।

আশৈশব স্বপ্ন ছিল, একটি বসত হবে, একজন

মালিয়ার কাছে শ্রমের সতেজ কড়ি তুলে দেবে ভালবাসাসহ।

আমার ছোট বোন সরল স্বাধীন কণ্ঠে

ঘুম ভাঙানিয়া গান, সেলাই করবে তার সুন্দর রুমালে।

এখনো সীমিত স্বপ্নের কাছে

আমি ফিরে ফিরে দেখি

প্রতিদিন নীলিমার রোদ হয়ে যাচ্ছে ম্লানমলিন,

লোভী চিল ঘোরে ফেরে, পাখার ছায়ার নিচে

দিন যায় কেটে, সুখের খামারবাড়ি আমার পৃথিবী

স্বপ্ন ছিল, আজও সেই স্বপ্ন জেগে আছে।

x