আবাহনীকে প্রথম হারের স্বাদ দিল মোহামেডান

ক্রীড়া প্রতিবেদক

মঙ্গলবার , ২২ মে, ২০১৮ at ১০:২৬ পূর্বাহ্ণ
39

ঘরোয়া হকির দুই শক্তিশালী দলের লড়াইয়ে জিতেছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। প্রিমিয়ার ডিভিশন হকিতে চির প্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনীকে ২১ গোলে হারিয়েছে তারা। টানা আট জয়ের পর চলতি লিগে এই প্রথম হারের স্বাদ পেল আবাহনী। টানা নয় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ল মোহামেডান। লিগে এখন পর্যন্ত মোহামেডান ছাড়া মেরিনার ইয়াংসও টানা নয় জয় পেয়েছে। মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে সোমবার ম্যাচের ২২তম মিনিটে প্রথম পেনাল্টি কর্নার পায় মোহামেডান। শামসের সিংয়ের পুশ কামরুজ্জামান রানা স্টপ করার পর জিমি তালগোল পাকিয়ে ঠিকঠাক শটই নিতে পারেননি। ২৪তম মিনিটে দ্বিতীয় পিসিতেও তালগোল পাকিয়েছিল মোহামেডান কিন্তু পরে ইমরান হোসেন পিন্টুর জোরালো হিট ঠিকানা খুঁজে পেলে এগিয়ে যায় দলটি। প্রথমার্ধের শেষ দিকে পাওয়া পেনাল্টি কাজে লাগাতে পারেনি আবাহনী। তাজউদ্দিন আহমেদের পুশ সারোয়ার হোসেন স্টপ করার পর আশরাফুল ইসলামের হিট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকে শামসের পুশ রানা স্টপ করার পর অরবিন্দর সিংয়ের হিট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে ব্যবধান দ্বিগুণ হয়নি। গোলমুখ থেকে সারোয়ার ও কৃষ্ণ সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হওয়ার পর ৫৫তম মিনিটে সমতার স্বস্তি ফেরে আবাহনী সমর্থকদের মুখে। জটলার মধ্যে থেকে আরশাদ হোসেন সুযোগ সন্ধানী হিটে লক্ষ্যভেদ করেন। শেষ দিকে দুটি পিসি পেলেও কাজে লাগাতে পারেনি মোহামেডান। প্রথমবার জিমি এবং পরেরবার রানার লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে সুযোগ নষ্ট করেন। জিমি আরেকটি সুযোগ নষ্ট করার পর ৬৯তম মিনিটে পেনাল্টি কর্নার থেকে নরেন্দর কুমারের গোলে জয় তুলে নেয় মোহামেডান। ম্যাচ শেষের প্রতিক্রিয়ায় হারের দায় বিদেশি খেলোয়াড়দের কাঁধে দিয়েছেন আবাহনী কোচ মাহবুব হারুন। “বিদেশিরা ফ্লপ। বিকাশ পিাইয়ের পারফরম্যান্স জিরো। আমার টিম এলোমেলো হয়ে গেছে। পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারেনি। আমরা মাত্র দুইটা পিসি পেয়েছি। মোহামেডান খেলে যোগ্য দল হিসেবে জিতেছে।” দলের জয়ে দারুণ খুশি মোহামেডান কোচ মওদুদুর রহমান শুভ পেনাল্টি কর্নারের একাধিক সুযোগ নষ্টের হতাশা অবশ্য আড়াল করেননি। “আজকের জয় শিরোপার দৌড়ে ভালো করার অনুপ্রেরণা দেবে। আজ সবাই মাঠে ২০০ ভাগ দিয়ে খেলেছে। কোনো জায়গায় ছাড় দেয়নি।” “আমরা পিসি কনভার্ট করতে পারিনি, এটাই সমস্যা। আমরা আধিপত্য করেছি। কিন্তু গোল আরও বেশি হতেই পারত। পিসি নিয়ে কাজ করতে হবে। কারণ বড় ম্যাচে এত সুযোগ পাওয়া যাবে না।”

x