আন্তোনিও গ্রামসি : আপোষহীন সংগ্রামী

মঙ্গলবার , ২২ জানুয়ারি, ২০১৯ at ৫:২১ পূর্বাহ্ণ
51

বিশ শতকের অন্যতম প্রধান মার্কসীয় চিন্তাবিদ হিসেবে সুপরিচিত আন্তোনিও গ্রামসি। ইতালীয় কমিউনিস্ট পার্টি প্রতিষ্ঠায় তাঁর ভূমিকা ছিল অগ্রগণ্য। এছাড়া একাধারে তিনি ছিলেন সাহিত্যিক, সাংবাদিক, দার্শনিক, ভাষাতাত্ত্বিক, সমাজতাত্ত্বিক, রাজনীতিবিদ এবং আপোষহীন সংগ্রামী। আজ তাঁর ১২৮তম জন্মবার্ষিকী।
গ্রামসির জন্ম ১৮৯১ সালের ২২ জানুয়ারি ইতালির সারদিনিয়ার দ্বীপরাজ্য অ্যালেসে। চার বছর বয়সে সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়ে পরবর্তীসময়ে চিকিৎসার অভাবে আজীবন ভুগেছেন মেরুদণ্ডের ক্ষয়রোগে। এরই প্রভাবে সারাজীবন তাঁকে কুঁজো হয়ে চলাফেরা করতে হয়েছে। বাড়তে পারেন নি দেড় মিটারের বেশি। নিষ্ঠুর এই শারীরিক প্রতিবন্ধিতার পাশাপাশি গ্রামসির চিরসঙ্গি ছিল নিদারুণ দারিদ্র্য। কিন্তু প্রবল মানসিক শক্তির কাছে হার মেনেছিল এই কঠোর প্রতিকূলতা। ‘অবন্তি’ ও ‘ইল গ্রিদো’ পত্রিকায় সাংবাদিকতা করেছেন তিনি। ১৯২১ সালে ইতালীয় কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন। পুঁজিবাদী সমাজ ব্যবস্থায় রাষ্ট্র পরিচালনার উপায় হিসেবে ‘কালচারাল হেজিমনি’ বা সাংস্কৃতিক আধিপত্যবাদ ধারনার জন্য গ্রামসি বিশেষ খ্যাতি অর্জন করেন। এটিই ছিল তাঁর সেরা দর্শন। সহিংস, সর্বহারা বিপ্লবের পরিবর্তে ‘হিস্ট্রিক্যাল কমপ্রোমাইজ’ অর্থাৎ ঐতিহাসিক আপোষ তত্ত্বের ওপর গুরুত্ব দেন গ্রামসি। তাঁর মতে, শান্তিপূর্ণ উপায়ে, আস্থা অর্জনের মাধ্যমে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা সম্ভব। আর এই উপায়ে মিত্রের সংখ্যা বাড়িয়ে সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পক্ষে ছিল তাঁর অবস্থান। আজীবন সংগ্রামী গ্রামসি ফ্যাসিবাদ বিরোধী আন্দোলনে ছিলেন বলিষ্ঠ কণ্ঠ। ইতালির ফ্যাসিস্ট নেতা মুসোলিনীর বিরোধিতা করায় দীর্ঘ কারাভোগ করতে হয়েছে তাঁকে। ফ্যাসিস্ট সরকার তাঁকে ২০ বছর ৫ মাস ৪ দিনের কারাদণ্ড দেয়। জেলখানায় বসেই তিনি লিখেছেন কালজয়ী গ্রন্থ ‘জেলখানার নোটবই’। ১৯৩৭ সালের ২৭ এপ্রিল কারাবন্দি অবস্থায় গ্রামসির মৃত্যু হয়। জেলখানার নোটবই গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয় তাঁর মৃত্যুর পর। স্ত্রীর ছোট বোন রাশিয়ার নাগরিক তাতিয়ানা গ্রামসির নোটগুলো সংগ্রহ করে বই আকারে প্রকাশের জন্য মস্কোয় পাঠান। বইটি প্রকাশের পর বিশ্বব্যাপী পরিচিত হয়ে ওঠেন আন্তোনিও গ্রামসি।

x