আকাশের ওপর হামলাকারী ও গডফাদারদের গ্রেফতার দাবি

প্রেস ক্লাব চত্বরে সমাবেশ

আজাদী প্রতিবেদন

মঙ্গলবার , ৭ মে, ২০১৯ at ১০:৫৭ পূর্বাহ্ণ
128

দৈনিক আজাদীর ফটিকছড়ি প্রতিনিধি মোহাম্মদ সোলায়মান আকাশের ওপর হামলাকারী এবং তাদের গডফাদারদের আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। গতকাল বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব চত্বরে চট্টগ্রামের বিক্ষুব্ধ সাংবাদিক সমাজ আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে সাংবাদিক নেতারা এ দাবি জানান।
সমাবেশে সাংবাদিক নেতারা বলেন, সোলায়মান আকাশ একজন সৎ, সাহসী ও মেধাবী সাংবাদিক। জনপ্রতিনিধির পোশাকে একশ্রেণির লুটেরা গোষ্ঠী ফটিকছড়িতে সরকারি বরাদ্দ লুটপাট করছে। সরকারি বালু মহাল থেকে বিনা ইজারায় বালু লুটপাট করছে। আকাশ তার লেখনীর মাধ্যমে এসব দুর্নীতিবাজদের মুখোশ খুলে দেওয়ায় লুটেরা গোষ্ঠী সংঘবদ্ধ হয়ে পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যার চেষ্টা চালায়। এঘটনার পর ফটিকছড়ির সংসদ সদস্য হিসেবে সৈয়দ নজিবুল বশর এখনো পর্যন্ত আকাশকে হাসপাতালে একনজর দেখতে যাননি। নেননি তার চিকিৎসার খোঁজ। উল্টো তার আচরণ আকাশের ওপর হামলাকারীদের পক্ষে বলে প্রচার রয়েছে। অন্যদিকে হামলাকারীরা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুগত বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। এতে প্রতীয়মান হয় হামলাকারীদের সঙ্গে উপজেলা চেয়ারম্যানের যোগসাজশ রয়েছে।
বক্তারা আরো বলেন, শুধু হামলাকারী দুর্বৃত্ত নয়, সাংবাদিক আকাশের ওপর হামলাকারীদের আশ্রয়দাতাদেরও খুঁজে বের করতে হবে। এঘটনার অন্তরালে যদি ফটিকছড়ির চিহ্নিত গডফাদারদের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায় তাদেরও ছাড় দেওয়া যাবে না। ঠিক এক বছর আগে আকাশের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় দু’টি মামলা করানো হয়। ওই দুই মামলার বাদী ছিল জামায়াত পন্থি এক ঠিকাদার। মামলার এক বছর পর তার ওপর পরিকল্পিতভাবে হামলা করে এসব কথিত জনপ্রতিনিধির লালিত সন্ত্রাসীরা।
চট্টগ্রামস্থ ফটিকছড়ি সাংবাদিক পরিষদের সদস্যসচিব ও বিএফইউজের সাবেক সদস্য মো. ফারুকের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন বিএফইউজে’র সহ সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব মহসিন কাজী, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নাজিমুদ্দীন শ্যামল, সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সবুর শুভ, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, বিএফইউজে সদস্য আজহার মাহমুদ, একুশে পত্রিকার সম্পাদক আজাদ তালুকদার, সীতাকুণ্ড প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ফোরকান আবু, ধর্মপুর স্কুলের প্রাক্তন ছাত্রছাত্রী পুনর্মিলনী পরিষদের সভাপতি মো. শাহজাহান চৌধুরী, সদস্যসচিব মো. লোকমানুল আলম, উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম, সংস্কৃতিককর্মী সোমা মুৎসুদ্দি, অ্যাডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার ও আবুল বশর প্রমুখ।

x