অসহায়দের অবহেলা করে সমাজ কখনও এগিয়ে যেতে পারে না

বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা

রবিবার , ৬ অক্টোবর, ২০১৯ at ৮:১০ পূর্বাহ্ণ
29

অনাথ সংহতি’র শারদোৎসব

শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে সনাতনী সমাজের অনাথ ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সাথে পুজোর আনন্দ ভাগ করে নিতে গত ৩০ সেপ্টেম্বর অনাথ সংহতি’র উদ্যোগে রাউজানের জগৎপুর আশ্রম অনাথালয়ে আয়োজন করা হয় ‘অনাথালয়ে শারদোৎসব’। এই উপলক্ষে অনাথালয়ের সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে আয়োজন করা হয় গান, খেলাধুলা, খাওয়া-দাওয়া। তাদেরকে উপহার হিসেবে দেয়া হয় নতুন জামা-কাপড়, কেক, চকলেট, পেন্সিল বাঙ, ফুটবল, ক্রিকেট ব্যাট, দাবা, বই, শিক্ষা-সামগ্রী ইত্যাদি। পাশাপাশি জগৎপুর আশ্রম অনাথালয়ে আশ্রিত ১২৪ জন শিশুদের জন্য এক মাসের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে অনাথ সংহতি। নতুন জামা-কাপড় ও অন্যান্য উপহার সামগ্রী পেয়ে আনন্দে মেতে উঠে অনাথ শিশুরা। এই উপলক্ষে জগৎপুর আশ্রম অনাথালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ডা. শ্রীপ্রকাশ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা আশ্রমের রানুপ্রভা-অশ্বিনী বিশ্বাস মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। অনাথ সংহতি’র সংগঠক দেবরাজ সেনগুপ্তের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় অতিথি ছিলেন অজয় কৃষ্ণ দাশ মজুমদার, চট্টগ্রাম চেম্বার পরিচালক অঞ্জন শেখর দাশ সিআইপি, সমাজসেবক প্রশান্ত রক্ষিত। বক্তব্য রাখেন অনাথ সংহতির মুখপাত্র সুদীপ্ত শেখর দাশ, রঞ্জন সেন, গৌতম নাগ, সৌমেন চৌধুরী, রাসেল রায় চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, মানব কল্যাণই প্রকৃত ধর্ম। অসহায়দের সেবা করাই প্রকৃত মানবতার কাজ। মানব সেবার মধ্যদিয়ে শান্তি লাভ করা যায়। অসহায়দের অবহেলা করে দেশ তথা সমাজ কখনও এগিয়ে যেতে পারে না। তাই প্রত্যেকের উচিত তাদের পাশে এসে দাঁড়ানো। অনাথ সংহতির নেতৃবৃন্দ বলেন, দুর্গাপূজায় সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের একটু ভালবাসার ছোঁয়া দিতে আমাদের এই উদ্যোগ। এবার ৬টি অনাথ আশ্রমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে দেশ-বিদেশের যেসব মানবপ্রেমী ব্যক্তিরা সহযোগীতার হাত বাড়িয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।
সনাতন

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে ফটিকছড়িতে প্রায় তিন শতাধিক সনাতন ধর্মাবলম্বী সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে আনন্দ ছড়িয়ে দিতে নতুন জামা-কাপড় বিতরণ করেন মানবিক সংগঠন সনাতন। গত ৪ অক্টোবর দুর্গাপূজার মহাষষ্ঠীতে উপজেলার বারমাসিয়া চা বাগান, কর্ণফুলী চা বাগান ও উদালিয়া চা বাগানের তিনটি স্পটে একযোগে সনাতনী দরিদ্র শিশুদের মাঝে নতুন জামা বিতরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা অশোক চক্রবর্তী, রাজীব দাশ, দেবব্রত চৌধুরী, রুপা সেনগুপ্ত, সঞ্জয় সেন, অনুপম ভট্টাচার্য্য, ভুজপুর ইউনিয়ন কমিটি সভাপতি তাপস দে, রূপম ভট্টাচার্য্য, নিরঞ্জন নাথ মন্টু সুব্রত দে. টিটু দে, শাওন সেন, বাবন বিশ্বাস, প্রিয়াল নন্দী, অনুপম সেন, রবি দে, সুমন বণিক, অভিরূপ চক্রবর্তী, সৈকত কুর্মী, বিপ্লব দে, আবু কুর্মি, ছোটন নাথ, অজয় সাহা, জয় সাহা, অভি সাহা প্রমুখ।
এতে বক্তারা বলেন, নতুন জামা পরে এসব সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা পূজামণ্ডপে দেবীর পায়ে পুষ্পাঞ্জলি পরাবে। সংগঠনটি দীর্ঘদিন ধরে দরিদ্রদের নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। প্রবাসী ও সমাজের বিত্তবানদের কাছ থেকে সংগঠনের সদস্যরা অর্থ সংগ্রহ করে সমাজের বঞ্চিত মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চেষ্টা করে যাচ্ছে।
হাটহাজারী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ

শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে হাটহাজারী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে এস এন্ড ডি মজুমদার ফাউন্ডেশন ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনায় তিন শতাধিক পূজার্থী নারী-পুরুষের মাঝে বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠান সংগঠনের সভাপতি মাস্টার অশো কুমার নাথের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক রিমন মুহুরীর পরিচালনায় মির্জাপুর জগন্নাথ ধাম পূজা মন্ডপে গতকাল অনুষ্ঠিত হয়। এতে উদ্বোধক ছিলেন পন্ডিত সুনীতি বিকাশ আচার্য। প্রধান অতিথি ছিলেন এস এন্ড ডি মজুমদার ফাউন্ডেশন ট্রাষ্ট চেয়ারম্যান দিলীপ কুমার মজুমদার। তিনি বলেন, বস্ত্র বিতরণ ধারা অব্যাহত থাকবে। প্রধান বক্তা ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাদা স ম এনাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন সমাজ সেবক মো: শহীদুল্লাহ তালুকদার শহীদ, এস আই মো: হাবিব, ডি এস বি মাইনুল ইসলাম, চট্টগ্রাম জেলা পূজা পরিষদের সহ-সভাপতি বিজয় কৃষ্ণ বৈষ্ণব, যুগ্ম-সম্পাদক বিশ্বজিৎ পালিত, অলক মহাজন, সাংগঠনিক সম্পাদক কল্লোল সেন, প্রেস ক্লাবের সভাপতি কেশব বড়ুয়া, আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়ার মেহেদী, সেকান্দর তুহিন, পরিমল কান্তি নাথ, অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিজয় দত্ত, বিপ্লব মুহুরী, প্রণব সেন, তপন দাশ, পাঁচকড়ি শীল, সুজন তালুকদার, বিজন পাল, নির্মল নাথ, ডা. স্বপন নাথ, ডা. আশীষ চৌধুরী, সৃজন দাশ, অশোক কুমার দে, ডা. রাসেল নন্দী প্রমুখ। শেষে তিন শতাধিক নারী পুরুষের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়।
জালাল আহমেদ ফাউন্ডেশন

ধর্মের জন্য মানুষ নয়, মানুষের জন্যই ধর্ম। প্রকৃত মনুষ্যত্বের বিকাশ না ঘটলে কখনো ধার্মিক হওয়া যায় না।
গতকাল নগরীর পাথরঘাটা বালিকা বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে মরহুম জালাল আহমদ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয়া দুর্গোৎসব উপলক্ষে দুস্থদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা একথা বলেন। তারা আরো বলেছেন, ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে এই কাজটুকু আমাদেরকে অবশ্যই করে যেতে হবে। মরহুম জালাল আহমেদ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আশফাক আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আয়োজনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, কার্যনির্বাহী সদস্য আবুল মনসুর, পাথরঘাটা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আবু মোহাম্মদ আবছার উদ্দিন চৌধুরী, যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলে আজিজ বাবুল, এডভোকেট তপন প্রমুখ।

প্রথম প্রহর ফাউন্ডেশন

‘যদি তুমি দৃশ্যমান মানুষকে ভালোবাসতে না পারো তাহলে অদৃশ্যমান সৃষ্টিকর্তাকে ভালোবাসবে কিভাবে? আর এই দৃশ্যমান মানুষগুলিকে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে বস্ত্র ও সেবা সামগ্রী বিতরণের মাধ্যমে ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটালো ‘প্রথম প্রহর ফাউন্ডেশন’।
গত শুক্রবার বিকালে প্রবারণা পূর্ণিমা ও দুর্গাপূজা উপলক্ষে অসহায় ও দরিদ্র মানুষের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়। স্থানীয় কেদারখীল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সৈয়দপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আমিনুল হকের সভাপতিত্বে এবং ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি লিও আরাফাতের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন টুরিষ্ট পুলিশের ডিআইজি রোটারিয়ান মুহাম্মদ মুসলিম। অতিথি ছিলেন সীতাকুণ্ড সমিতির সাবেক সভাপতি লায়ন মোঃ গিয়াস উদ্দিন, সীতাকুণ্ড সমিতির সাধারণ সম্পাদক লায়ন নাছির উদ্দিন মানিক, লায়ন মোঃ বেলাল হোসেন, লায়ন কাজী আলী আকবর জাসেদ, লায়ন এডভোকেট সরোয়ার লাভলু, লায়ন মফিজুর রহমান সাজ্জাদ, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বাবু প্রতাপ নাথ, ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম সোহেল, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আখতারুজ্জামান বুলবুল, ফাউন্ডেশনের উন্নয়ন সম্পাদক মাসুদ রানা, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ঝুমুর দাস, সীতাকুণ্ড যুব উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের সভাপতি এম কে মুনির ও বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, জিতু কর্মকার। অনুষ্ঠানে অর্ধ শতাধিক মানুষের মাঝে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x