অর্ঘ্য, শান্তনু বিশ্বাসকে নিবেদিত

ফারহানা আনন্দময়ী

শুক্রবার , ২৩ আগস্ট, ২০১৯ at ৫:০২ পূর্বাহ্ণ
43

তোমরা বলছো বৃত্ত, আমি বলি কেন্দ্র
তোমরা বলছো স্মৃতিকণা, আমি বলি মুহূর্তযাপন
তোমরা বলছো অসময়, আমি বলি অনন্ত
তোমরা বলছো শূন্যতা, আমি বলি পূর্ণপ্রাণ লাবণ্য ।
তোমরা বলছো বিদায়, আমি বলি অপেক্ষা
তোমরা বলছো হাহাকার, আমি বলি উজ্জ্বলতম অন্তরাল
তোমরা বলছো নিভে-যাওয়া, আমি বলি হে চির আগুন
তোমরা বলছো সন্ধ্যা-আলোক, আমি বলি সহস্র সূর্যোদয় ।
তোমরা বলছো ডুবে যাওয়া চাঁদ, আমি বলি ভোরের বাগান
তোমরা বলছো এ কেমন স্তব্ধতা! আমি বলি এ কেবল প্রসারণ
তোমরা বলছো হিমযাত্রা, আমি বলি আলো-গলা-নদ
তোমরা বলছো মৃত্যুদ্বার, আমি বলি নক্ষত্রজীবন।
তোমরা বলছো অসহ শোক, আমি বলি দুর্মর মুক্তি
তোমরা বলছো একাকী নির্জন, আমি বলি অনুপম নিঃসঙ্গতা
তোমরা বলছো শৃঙ্খলিত অন্ধকার, আমি বলি অলৌকিক আনন্দায়ু
তোমরা বলছো সম্মিলিত এলিজি, আমি বলি আদিঅন্তহারা ।
আর
তুমি যখন বলো, নৈঃশব্দ্য শোনাও;
আমি বলি, কে আমারে কী যে বলে ভোলাও ভোলাও
তুমি এবার বলো, আলো অন্ধকার গাও;
আমি তখন বলি, উদযাপিত হও…তুমি, উদযাপিত হও।

x