অবশেষে আলাদা হল সেই দুই জাহাজ

আজাদী প্রতিবেদন

সোমবার , ১৭ জুন, ২০১৯ at ৫:০৭ পূর্বাহ্ণ
374

বন্দর চ্যানেল সংঘটিত ভয়াবহ জাহাজ দুর্ঘটনায় জোড়া লেগে যাওয়া জাহাজ দুইটিকে পৃথক করা হয়েছে। চট্টগ্রাম বন্দরের নৌ-প্রকৌশল বিভাগের বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলীরা গতকাল রোববার সকালে জাহাজ দুইটিকে আলাদা করেন। জাহাজ দুইটি আলাদা করার পর এমভি এক্সপ্রেস মহানন্দাকে বন্দরের ১২ নম্বর বার্থে নিয়ে আসা হয়। ওখানে জাহাজের কন্টেনার খালাস করা হচ্ছে। গত শুক্রবার সকালে বন্দর চ্যানেলের ১২ নম্বর ঘাটের কাছে ৭৪৪ টিইইউএস কন্টেনার নিয়ে বন্দরে ভিড়তে আসা এমভি এক্সপ্রেস মহানন্দা এবং জ্বালানি তেল খালাস করে বহির্নোঙরের দিকে যাত্রা করা এমটি বুরগান জাহাজের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ভয়াবহ এই ঘটনায় অপেক্ষাকৃত ছোট জাহাজ এক্সপ্রেস মহানন্দার সামনের অংশ এমটি বুরগান জাহাজের ভিতর ঢুকে যায়। জাহাজ দুইটি মুখোমুখি একটির সাথে অপরটি আটকে যায়। অনেক চেষ্টা করেও জাহাজ দুইটিকে আলাদ করা সম্ভব না হওয়ায় ছয়টি শক্তিশালী টাগ লাগিয়ে জোড়া লাগা জাহাজ দুইটিকে ড্রাইডক জেটিতে এনে বিশেষ ব্যবস্থায় বার্থিং করে রাখা হয়। শনিবার জাহাজ দুইটিকে পৃথক করার চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি। গতকাল সকালে চট্টগ্রাম বন্দরের সদস্য (হারবার ও মেরিন) ক্যাপ্টেন এম শফিউল বারীর নেতৃত্বে বন্দরের নৌ-প্রকৌশল বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জাহাজ দুইটিকে পৃথক করার জন্য নতুনভাবে কাজ শুরচ করেন। ছয়টি টাগ দিয়ে টেনে এবং প্রয়োজনীয় অংশ কেটে জাহাজ দুইটিকে পৃথক করা হয়। এরপর কন্টেনারবাহী জাহাজটিকে বন্দরের ১২ নম্বর বার্থে এবং অয়েল ট্যাংকারটিকে ডলফিন জেটিতে নোঙর করে রাখা হয়। আজকের মধ্যে জাহাজটির ৭৪৪ টিইইউএস কন্টেনার খালাস সম্পন্ন হলে এটিকে মেরামতে পাঠানো হবে বলে সূত্র জানিয়েছে। অপরদিকে অয়েল ট্যাংকারটিকেও মেরামত শেষে কুয়েত পাঠানো হবে। জাহাজ দুর্ঘটনা তদন্তে গঠিত কমিটি ঘটনার তদন্ত করছে। কমিটিকে দশ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

x