অতুল প্রসাদ সেন: সংগীতে স্বতন্ত্র ধারার রূপকার

বুধবার , ২০ নভেম্বর, ২০১৯ at ৩:১৪ পূর্বাহ্ণ
13

অতুলপ্রসাদ সেন একাধারে কবি, সংগীত শিল্পী, গীতিকার ও সুরকার। বাংলা সংগীতের জগতে তিনি একটি স্বতন্ত্র ধারার সূচনা করেছিলেন। এই ধারায় তাঁর গানের কথা ও সুর ভিন্ন মাত্রার আবহ তৈরি করে। বলা হয়ে থাকে, বাংলা গানে তিনি প্রথম ‘ঠুমরি’র প্রচলন করেছিলেন। আজ এই সংগীতস্রষ্টার ১৪৮তম জন্মবার্ষিকী।
অতুলপ্রসাদ সেনের জন্ম ১৮৭১ সালের ২০-এ অক্টোবর ফরিদপুরের মগর গ্রামে। পেশায় তিনি ছিলেন আইনিজীবী। তবে সংগীতে হাতেখড়ি কিশোর বয়সেই। স্বদেশ, প্রেম ও ভক্তি অতুলপ্রসাদের গানে কোমল ভাষা ও মনোরম সুরের মূর্চ্ছনায় বিশেষ বৈশিষ্টমণ্ডিত হয়ে উঠেছে। কীর্তন, বাউল, লোক সংগীত ও নজরুলের সুরের সম্মিলনে এক অসাধারণ সংগীত রীতি অতুলপ্রসাদের গানে মৌলিক রূপ পেয়েছে। অধিকাংশ গানেই বেদনা আর করুণ অভিব্যক্তি। তাঁর স্বদেশী সংগীতের মধ্যে ‘মোদের গরব, মোদের আশা, আ-মরি বাংলা ভাষা’ গানটি ষাটের দশকে জাতীয়তাবাদী আন্দোলনে প্রেরণা জুগিয়েছিল।
অতুলপ্রসাদের দু’শটিরও বেশি গান সংকলিত রয়েছে ‘কয়েকটি গান’ ও ‘গীতিপুঞ্জ’ গ্রন্থে। ১৯৩৪ সালের ২৬শে আগস্ট এই শিল্পস্রষ্টার জীবনাবসান ঘটে।

x