৪% অধিক কর্তন ও প্রাসঙ্গিক কথা

বুধবার , ১ মে, ২০১৯ at ৫:৫৭ পূর্বাহ্ণ
22

বেসরকারি শিক্ষকদের এমপিও এর টাকা হতে ৪% অবসরের জন্য আর ২% কল্যাণের জন্য মাসিক কর্তন হয়,শুনেছি এই অর্থের কোন হিসাব নাই, লুঠপাঠ আর ফন্দি ফিকির করে এই টাকা গুলো শিক্ষক নেতাদের দখলে, শিক্ষকদের কাছ থেকে যা টাকা কর্তন হয় তাও যদি শিক্ষকদের কাছে যথাসময়ে দেয়া যেতো তাহলে অবসর শিক্ষকদের দুঃখ অনেক লাঘব হতো, প্রচার আছে গত পাঁচ বছর আগে যারা অবসর নিয়েছে তারা এখনও টাকা তুলতে পারেনি,এতগুলো টাকা কোথায় গেলো তার কোন হদিস নাই, এটি একটি খোড়া যুক্তি যথাসময়ে শিক্ষকদের অবসর ও কল্যাণের টাকা ফেরৎ দেয়ার জন্য এই ৪% অধিক কর্তন,অধিক কর্তনে যদি শিক্ষকদের অধিক লাভ না থাকে তাহলে এই অধিক কর্তন কোন্‌ যুক্তিতে, অবসর ভাতা ৭৫ মাসের পরিবর্তে ১৩০ মাস হতে পারে আর কল্যাণের টাকাও যদি অনুপাতিক বাড়ে তাহলে চিন্তা করা যায় ৪% কাটার যুক্তি আছে, অনেকে বলছেন বোনাস শতভাগ করলে ৪% কর্তন যুক্তিসংগত, আমি এই যুক্তি মানি না, কারণ বোনাস হলো সাময়িক দুই ঈদে আর কর্তন হলো প্রতি মাসে, বোনাস পাওয়াটা শিক্ষকদের ন্যায্য অধিকার, বোনাসের সাথে কর্তনের কি সম্পর্ক থাকতে পারে তবে হা বাড়ি ভাড়া যদি আমাদের ৪০-৫০% করা যায় তখন ৪% কর্তন মামুলী বিষয়। এমনিতেই বিশ্বের কোথাও অবসর সুবিধার নামে টাকা কর্তনের নিয়ম নাই, এমনকি আমাদের দেশেও প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের পেনশন বাবত কোনো টাকা কর্তন হয় না, এই অবস্থায় এক দেশে দুই নিয়ম কিভাবে হতে পারে। বেসরকারি শিক্ষকদের কপাল মন্দ, তাদের মাসিক বেতন তোলার আগে যেখানে টাকা খরচ হয়ে যায় সেখানে ৪% অধিক কর্তন এটি মরার ওপর ক্ষতের ঘা ছাড়া আর কি। ৪% কর্তনের প্রজ্ঞাপন জারি হবার পর কিছু সরকারি মদদ পুষ্ট দালাল সংগঠন ছাড়া বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি বাকশিস সহ প্রায় সব শিক্ষক সংগঠন প্রতিবাদ করে আসছে। আশা করি সরকার শিক্ষকদের দাবীর মুখে ৪% কর্তন প্রত্যাহার করবেন।
সৈয়দ শাহাদাত হোসাইন, সহকারী অধ্যাপক,
বাকলিয়া শহিদ এন এম এম জে ডিগ্রি কলেজ,চট্টগ্রাম।

x